নলতায় যত্রতত্র জ্বালানী তেলের দোকান, প্রশাসন নির্বিকার


প্রকাশিত : April 4, 2012 ||

আহাদুজ্জামান আহাদ, নলতা : নলতার হাট-বাজারে অনুমোদনবিহীন প্রায় ১৫টি পেট্রল-মবিলের উন্মুক্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারি কোনো বিধিবিধানের তোয়াক্কা না করেই বিপদাপন্ন ওই দাহ্য পদার্থ বিক্রি করে যাচ্ছে। এর ফলে সরকার যেমন রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তেমনি যেকোনো সময়ে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটারও সম্ভাবনা রয়েছে। এমনকি এর অপব্যবহারে নাশকতারও আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। সরজমিন দেখা গেছে, উপজেলার নলতাবাজারসহ আশপাশের প্রায় সকল হাটবাজারেই পেট্রল-মবিলের দোকান রয়েছে। বিধি মোতাবেক পেট্রল-মবিলসহ দাহ্য পদার্থ বিক্রি করতে হলে আবেদনের পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ফায়ার সার্ভিসের তদন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা বিস্ফোরক অধিদপ্তর থেকে ছাড়পত্র নিয়ে খুলনার মংলাতে অবস্থিত বিস্ফোরক অধিদপ্তর থেকে লাইসেন্স গ্রহণ করতে হয়। এছাড়া প্রত্যেক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে সক্রিয় অগ্নিনির্বাপক সিলিন্ডার, নিরাপদ সংরক্ষণাগার, বিক্রয় প্রতিষ্ঠানের নামে দলিলপত্র, ব্যাংক সলভেন্সি ইত্যাদি অবকাঠামো ও কাগজপত্র থাকা বাধ্যতামূলক।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, নলতার হাতেগোনা দু’চারটি প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্যদের ওই দাহ্য পদার্থ বিক্রির কোনো অনুমতি নেই এবং তাদের কোনো অগ্নিনির্বাপক সিলিন্ডারসহ অন্যান্য অবকাঠামোও নেই। উন্মুক্তভাবে ওই সকল দাহ্য পদার্থ বিক্রি করায় এর অপব্যবহারসহ নানাবিধ নাশকতারও আশঙ্কা রয়েছে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।

শ্যামনগরে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা

শ্যামনগর অফিস : শ্যামনগর উপজেলার বিএসটি ক্লাবের পক্ষ হতে আনুষ্ঠানিক ভাবে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা জ্ঞাপন করা হয়েছে। গতকাল সকাল ১১টায় ভেটখালী বিএসটি ক্লাবে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ক্লাবের সভাপতি আরাব আলীর সভপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী। ক্লাবের সকল সদস্যগনের উপস্থিতিতে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর সৈনিক মুক্তিযোদ্ধা আমীর হামজা, পরিমল মন্ডল, কালিপদ কর্মকারসহ ইউনিয়নের কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধাকে একটি করে ছাতা উপহার দিয়ে প্রধান অতিথি সংবর্ধনা জ্ঞাপন করেন।