আশাশুনি বাজারে দোকান বরাদ্দে অনিয়মের অভিযোগ


প্রকাশিত : এপ্রিল ৫, ২০১২ ||

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি বাজারে ব্যবসায়ীদের নামে দোকান বন্দোবস্তে অনিয়মের প্রতিকার প্রার্থনা করে জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করা হয়েছে। ব্যবসায়ী এসএম আজাদ হোসেন টুটুল স্বাক্ষরিত ওই আবেদন সূত্রে জানা যায়, তিনি বা তার পিতা ২০ বছর যাবৎ বাজারে অর্ধ শতক সম্পত্তিতে দোকান ঘর নির্মাণ করে দোকান পরিচালনা করে আসছেন। তত্ত্ববাধায়ক সরকারের আমলে তারসহ পাশের কয়েকজেনর দোকানের কিছু অংশ ভেঙ্গে দেয়া হয়। তৎকালীন স্থানীয় তহশীলদার তার প্রাপ্য অর্ধ শতক জমি দোকানের পশ্চিম পাশ্বের কিছু অংশ দিয়ে পূরণ করে দেয়া হবে বলে বাজার বণিক সমিতির সেক্রেটারিসহ সকলের সামনে প্রতিশ্র“তি দেন। ২৩/০৩/০৮ তারিখে জেলা প্রশাসক কর্তৃক বাজারটি পেরিফেরি অনুমোদিত হলে অর্ধ শতক সম্পত্তি তিনি পেরিফেরির আওতায় বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য ৩০/২০১০নং মিস কেস করে কিছু অংশে ব্যবসা করে আসছেন। আবেদনে দাবি করা হয়, প্রভাবশালী কিছু ব্যবসায়ী সরকারি নীতিমালা ভঙ্গ করে অর্ধ শতকের বেশি জমি দখল নিয়ে তার প্রাপ্য সম্পত্তি তিনি যাতে দখল নিতে না পারেন সে লক্ষ্যে অতিরিক্ত জমি দাবি করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জনৈক আব্দুর রশিদ ও তার পুত্রের নাম ব্যবহার করে একাধিক দরখাস্তের মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে ভুল বুঝানোর চেষ্টা করছে। আবেদনে তাদের দাখিলকৃত আবু মুছার নামীয় মিস কেস নং ২৬/২০১০ এবং হারুন অর রশিদ মিস কেস নং ২৮/২০১০ উভয়ের পিতা আব্দুর রশিদ এবং মৃত আতাউর রহমান এর পুত্র আব্দুর রশিদ সরদারের দরখাস্ত ৩টি নিয়ম বহির্ভূত হওয়ায় তদন্ত দাবি করা হয়েছে। গত জানুয়ারি মাসে জেলা প্রশাসক সহকারি কমিশনার (ভূমি) এবং ইউএনও কর্তৃক সার্ভেয়ারকে বিষয়টি দেখার দায়িত্ব দেয়া হলেও অদ্যবধি কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় তিনি উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। বিষয়টি প্রতিকারের জন্য উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।