কপিলমুনিতে নিষিদ্ধ পলিথিনের ব্যবহার বাড়ছে


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৩০, ২০১৪ ||

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি (খুলনা): কপিলমুনি সদরসহ এলাকার প্রত্যেকটি বাজারে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগের ব্যবহার বাড়ছে। কাগজ, নেট ও পাটের ব্যাগের তুলনায় সস্তা হওয়ায় দোকানীরা পলিথিন ব্যাগ বিক্রির দিকে ঝুঁকে পড়েছেন। তারা মাছ তরি-তরকারীসহ যাবতীয় পণ্য সামগ্রী বিক্রিতে পলিথিন ব্যবহার করছেন। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা অধিক মুনাফা লাভের জন্য পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক এই পলিথিন ব্যাগ প্রকাশ্যে বিক্রি করলেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন রয়েছে নির্বিকার। কপিলমুনি বাজারসহ মামুদকাটী বাজার, মামুদকাটী মোড়বাজার, কাশিমনগর বাজার, আগড়ঘাটা বাজার, সোনাতনকাটী বাজার ও শামুকপোতা বাজারের অধিকাংশ মুদি ও কসমেটিকস্ দোকানে বিক্রি হচ্ছে পলিথিন ব্যাগ।
তথ্যানুসন্ধানে জানাযায়, পরিবেশ ও উদ্ভিদের মারাত্মক ক্ষতিকারক পলিথিন ব্যবহার ও বিক্রি প্রায় ৭ বছর পূর্বে সরকার নিষিদ্ধ করে। উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের মতে, পলিথিন সহজে পচে না, ফলে এতে উদ্ভিদের শেকড়সহ শাখা বিস্তারে সমস্যা দেখা দেয়। একইভাবে ওই পলিথিন ভবন নির্মাণের জন্য ক্ষতিকর। এছাড়া পলিথিন স্বাস্থ্যগত সমস্যার কারণ। এজন্য ওই সময় সরকার কর্তৃক পলিথিন ব্যবহার নিষিদ্ধ করে নেট, পাট ও কাগজের ব্যাগ ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়। কিন্তু সরকারের সে পরামর্শ বা নির্দেশনা কোন কাজে আসেনি বরং নিয়ম-নীতির প্রতি বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে এক শ্রেণির অসাধু অর্থলোভী ব্যবসায়ীরা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।
কপিলমুনি বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সুকান্ত কুমার মনা বলেন, এটি খুব সহজেই ব্যবহার যোগ্য ও তুলনামূলক দামে অনেক কম বলেই আমার ব্যবহারের প্রতি আগ্রহটা বেশি। মাছ বিক্রেতা তমেজ আলী জানান, ক্রেতা সাধারণ সহজেই এটি পছন্দ করেন, বিশেষ করে আমাদের মাছ বাজারে পলিথিনের ব্যবহারটা সব চেয়ে বেশি।