দন শেষে চাপ বাড়ালেন সৌম্য-মুমিনুল


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৭ ||

ন্যাশনাল ডেস্ক: হায়দরাবাদে ঐতিহাসিক টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ৪৫৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে চতুর্থ দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১০৩ রান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৯ এবং সাকিব আল হাসান ২১ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন। সোমবার শেষ দিনে আবারও ব্যাট হাতে নামবেন সাকিব ও রিয়াদ। জিততে হলে বাংলাদেশকে আরো ৩৫৬ রান করতে হবে। আর ড্র করতে হলে বাংলাদেশকে ৫ম দিনের পুরো তিনটি সেশন অর্থাৎ ৯০ ওভার ব্যাট করতে হবে।
এর আগে ৪৫৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে  শুরুতেই সাজঘরে ফেরেন তামিম ইকবাল। প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যর্থ ওপেনার তামিম। তিনি মাত্র ৩ রান করে রবিচন্দন অশ্বিনের বলে কোহলির হাতে ধরা পড়েন। এরপর মুমিনুলের সঙ্গে মূল্যবান ৬০ রানের জুটি গড়েন সৌম্য সরকার।
তবে ব্যক্তিগত ৪২ রান করে জাদেজার বলে রাহানের হাতে ধরা পড়েন সৌম্য। তবে টেস্ট ম্যাচের কোনো ছাপ তার ব্যাটে দেখা যায়নি। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট করেন সৌম্য। অফ স্টাম্পের বাইরের বল খেলতে গিয়ে স্লিপে ধরা পড়েন সৌম্য।
এরপর দ্রুতই সাজঘরে ফেরেন মুমিনুল হক। তিনি ২৭ রানে অশ্বিনের বলে জাদেজার হাতে ধরা পড়েন। প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন মুমিনুল। দ্বিতীয় ইনিংসে তার কাছে দলের প্রত্যাশাও ছিল অনেক বড়। কিন্তু দলের সেই দাবি মেটাতে ব্যর্থ হন এ বাম-হাতি ব্যাটসম্যান।
তিনিও সৌম্যর মতো অফ স্টাম্পের বাইরের বল খেলতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দেন। এরপর সাকিব আল হাসান এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২৮ রানের জুটি গড়ে দিনের খেলা শেষ করেন। এর আগে প্রথম ইনিংসে ২৯৯ রানে এগিয়ে থাকার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেটে ১৫৯ রানে ইনিংস ঘোষণা করে ভারত।
রোববার ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে পেস দিয়ে কাঁপন ধরিয়ে দেন তাসকিন আহমেদ। ২৩ রানের মধ্যে ফিরিয়ে দেন দুই ওপেনারকে। দলীয় ১২ রানে বাংলাদেশের প্রথম সাফল্য এনে দেন তাসকিন। তার পেস গোলায় মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন প্রথম ইনিংসে শতক করা ওপেনার মুরালি বিজয়, মাত্র সাত রানে।
এরপর ২৩ রানে একইভাবে মুশফিকের ক্যাচ বানিয়ে তাসকিন তুলে নেন আরেক ওপেনার লোকেশ রাহুলকে। তিনি করেন ১০ রান। এরপর চেতশ্বর পূজারা ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি প্রতিরোধ গড়ে তোলেন।
ওয়ানডে স্টাইলে করা ৬৭ রানের এই জুটি ভাঙেন সাকিব আল হাসান। দলীয় ৯০ রানে তার বলে মাহমুদউল্লাহর তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফেরেন ৩৮ রান করা কোহলি। সাকিবের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন আজিঙ্কা রাহানে। রাহানে ২৮ রান করে সাকিবের বলে বোল্ড হন।
শেষ পর্যন্ত ভারত সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১৫৯ রান করে তাদের দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে। এতে বাংলাদেশের সামনে ৪৫৯ রানের পাহাড় সমান লক্ষ্য দাঁড়ায়। চেতশ্বর পূজারা ৫৪ এবং রবিন্দ জাদেজা ১৬ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন। এর আগে একমাত্র টেস্টের প্রথম ইনিংসে ভারতের ৬৮৭ রানের জবাবে বাংলাদেশ ৩৮৮ রানে গুটিয়ে যায়।
দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১২৭ রান করেন অধিনায়ক মুশফিকুর। এছাড়া সাকিব আল হাসান ৮২ ও মেহেদী হাসান মিরাজ ৫১ রান করেন। ভারতীয়দের মধ্যে ৩ উইকেট নিয়ে সেরা বোলার উমেশ যাদব। এছাড়া অশ্বিন ও জাদেজা দুটি করে উইকেট নেন। বাংলাদেশ ফলোঅনে পড়লেও ২৯৯ রানের লিডকে যথেষ্ট মনে না করায় ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন।