কপিলমুনিতে যুবকের রহস্যজনক আত্মহত্যা!


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৭ ||

কপিলমুনি (খুলনা) প্রতিনিধি: কপিলমুনিতে এক যুবকের রহস্যজনক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকার মানুষের মাঝে ধু¤্রজাল সৃষ্টি হয়েছে।
জানাযায়, কপিলমুনির পার্শ্ববর্তী হাবিবনগর গ্রামের আবু তালেব গাজীর ছোট ছেলে মো. লিটন গাজীর বসত বাড়ির অদূরে একটি বাগানে আম গাছে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। রবিবার সকাল ৬টার দিকে লিটনকে একটি আম গাছে জামা দিয়ে গলায় পেচিয়ে ঝুলতে দেখে এক প্রতিবেশী, এ সময় প্রতিবেশী জিন্নাত তার পরিবারকে জানায়। পরে পাইকগাছা থানা পুলিশ মৃত. দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।
এদিকে লিটনের আত্মহত্যার এ ঘটনাটি পরিবার ও এলাকাবাসী  রহস্যজনক বলে ধারণা করছেন। লিটনের বড় ভাই মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ছোট ভাই লিটন পেশায় গাড়ির চালক (ড্রইভার), সে সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়িতে ছিল। হঠাৎ কার যেন ফোন আসে, সেই ফোন পেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়, আর বাড়ি ফিরেনি। পরদিন সকালে তাকে মৃত উদ্ধার করা হয়। সে আত্মহত্যা করেনি তাকে কারা পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে গাছের ডালে ঝুলিয়ে দিয়েছে।
মৃতের পিতা আবু তালেব বলেন ‘আমার ছেলেকে মেরে ফেলা হয়েছে, সে আত্মহত্যা করতে পারে না’।
জানতে চাইলে পাইকগাছা থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক সন্জয় দত্ত বলেন ‘মৃত দেহের সুরতহাল রিপোর্ট করা হয়েছে এবং সর্বশেষ ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে আত্মহত্যা না হত্যা সেটা ময়না তদন্তের পর বলা যাবে’।