জেলা ছাত্রলীগ পালন করলো শহীদ এ.এম.বি মামুন হোসেন এর ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকী


প্রকাশিত : মার্চ ১, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা সিটি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, জামাত-শিবিরের হাতে নির্মমভাতে নিহত এ.এম.বি মামুন হোসেনের ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় জেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে জেলা ছাত্রলীগ কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

 

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হুসাইন সুজনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রাধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস.এম শওকত হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের আহবায়ক আব্দুল মান্নান, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এহসান হাবীব অয়ন, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মঈনুল হাসান জাহিদ, পৌর যুবলীগের আহবায়ক মনোয়ার হোসেন আনু, যুগ্ম আহবায়ক তুহিনুর রহমান তুহিন, জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মো. জাবিদ হাসান জনি, আরিফুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত, সদর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান শাওন, শহর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আসাফুর রহমান, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মিঠুন ব্যানার্জী, সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী শাহেদ পারভেজ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ‘২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি জামাত শিবিরের হাতে নির্মমভাবে নিহত হন সাতক্ষীরা সিটি কলেজের প্রভাষক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এ.এম.বি মামুন হোসেন।

 

জামায়াত নেতা দেলোয়ার হুসাইন সাঈদীকে যুদ্ধাপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক আদালত ফাসির রায় ঘোষণা করলে সাতক্ষীরাসহ সারা দেশে তান্ডব লীলায় মেতে ওঠে জামায়াত-শিবির। জেলা শহরের কদমতলা মোড়ে জামায়াত-শিবিরের হাজার হাজার নেতা-কর্মীরা জড়ো হয়ে জঙ্গি স্টাইলে হামলা হালায়। বৃষ্টির মতো বোমা ককটেল ইট-পাথর নিক্ষেপ করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপর। এসময় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা প্রভাষক এ.এম.বি মামুন হোসেনের বাড়িতে পানি খাওয়ার নাম করে প্রবেশ করে।

প্রভাষক মামুন পানি নিয়ে আসা মাত্রই তাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মাথা থেতলে দেয় জামায়াত-শিবিরের ক্যাডাররা। আলোচনা শেষে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এহসান হাবীব অয়ন।