কলারোয়া সীমান্তে পৃথক পতাকা বৈঠকে দু’দেশের নারী-পুরুষ হস্তান্তর


প্রকাশিত : মার্চ ১, ২০১৭ ||

কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়া সীমান্তে পৃথক পতাকা বৈঠকে এক বাংলাদেশি গৃহবধূ ও এক ভারতীয় নাগরিককে হস্তান্তর করেছে বিজিবি-বিএসএফ। মঙ্গলবার সকালে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ এমদাদুল হক শেখ জানান, সোমবার রাতে কলারোয়ার মাদরা বিওপির হাবিলদার মেহেদী হাসান এক বাংলাদেশিকে কলারোয়া থানায় সোপর্দ করে। তিনি জানান, গোপালগঞ্জের গোপিনাথপুর গ্রামের সুমন মোল্যার স্ত্রী সোনিয়া বেগম (২০) অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করে। এ সময় ভারতে টহলরত বিথারী ক্যাম্পের বিএসএফ তাকে আটক করে। পরে আটককৃত সোনিয়াকে সোমবার সন্ধ্যায় পাতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ভাদিয়ালী সীমান্তের মেইন পিলার ১৩/৩এর ৮আরবি কাছে হস্তান্তর করে। এ ঘটনায় কলারোয়া থানায় একটি মামলা নং-৩১(২)১৭ দায়ের করা হয়েছে।
অপরদিকে, কলারোয়ার কাকডাঙ্গা সীমান্তে বিজিবি সদস্যরা পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে হাকিমপুর বিএসএফ’র কাছে অপর এক ভারতীয় নাগরিককে হস্তান্তর করেছে। মঙ্গলবার দুুপুরে তাকে ভারতীয় বিএসএফ’র কাছে হস্তান্তর করা হয়। কাকডাঙ্গা বিওপি’র নায়েক সুবেদার মিজানুুর রহমান জানান, গত দু’দিন আগে ভারতীয় নাগরিক অবৈধ ভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করে এবং ক্যাম্প এলাকায় ঘোরাঘুরির সময় বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যদের হাতে ধরা পড়ে। মঙ্গলবার দুপুরে ভাদিয়ালী সীমান্তের মেইন পিলার ১৩/৩ এস-৭ আরবি’র কাছে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ওই ব্যক্তিকে বিজিবি ভারতীয় হাকিমপুর বিএসএফ’র নিকট হস্তান্তর করে। হস্তান্তকারী ভারতীয় নাগরিক হল উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার হাকিমপুর গ্রামের সাঈদ গাজির ছেলে আব্দুল্লাহ গাজি (২৬)।