মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন: খানজিয়া খাটাল চোরাচালানির নামে নবায়ন নয়


প্রকাশিত : মার্চ ৩১, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, কালোবাজারি ও ফেন্সিডিল স¤্র্রাট হিসাবে সমালোচিত ছিদ্দিক গাজী ওরফে কালু ছিদ্দিকের নামে খানজিয়া গরুর খাটাল নবায়ন না করার দাবি জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধারা। নারকেলের ছোবড়ার মধ্যে ফেনসিডিল চোরাচালানের মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। পুলিশের চোখ এড়িয়ে পালিয়ে থাকা সেই কালু ছিদ্দিকের নামে এবার খানজিয়া খাটাল দেখতে চান না এলাকার মানুষ। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে এই দাবি জানিয়েছেন এলাকার মুক্তিযোদ্ধা মো. আনোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, কালিগঞ্জের খানজিয়া খাটালের মেয়াদ ৩০ চৈত্র শেষ হচ্ছে। অপরদিকে সেই খাটাল আবারও নিজের নামে নবায়নের জন্য কালোবাজারি কালু ছিদ্দিক আবেদন করেছেন। এই আবেদনে তিনি মিথ্যা তথ্য দিয়ে জাল কাগজপত্রও জমা দিয়েছেন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন কালু একজন নারী ও শিশু পাচারকারী। আইন শৃংখলা বাহিনীর হাতে একাধিকবার গ্রেপ্তারও হয়েছেন তিনি। মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন বলেন তার বিরুদ্ধে ওয়ার্ড মেম্বর ও ইউপি চেয়ারম্যানসহ অনেকেই প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ে অভিযোগ দিয়েছেন। অথচ অদৃশ্য শক্তির বলে তিনি পার পেয়ে যাচ্ছেন। জাল ও ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে খাটালটি মাসুম ট্রেডার্সের নামে নিজের আয়ত্বে আনার চেষ্টা করছেন তিনি। কালু ছিদ্দিক ভারতীয় গরুর খাটাল ব্যবসার আড়ালে নানা ধরণের অপরাধের সাথে জড়িত রয়েছেন। এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে কালিগঞ্জের ইউএনও, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কাছে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। নলতা ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান তার প্রতিবেদনে বলেছেন খাটাল মালিক কালু ছিদ্দিকের নামে চোরাচালানের একাধিক মামলা রয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আলি, মুক্তিযোদ্ধা আবুবকর সিদ্দিক, ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান, মো. রমজান আলি, জলমাত আলি, মিজানুর রহমান, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।