কলারোয়ায় ছাত্র বেত্রাঘাতে মামলা: আটক শিক্ষক


প্রকাশিত : এপ্রিল ২০, ২০১৭ ||

কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়ায় স্কুল শিক্ষকের বেত্রাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত ও অসুস্থ হয়ে পড়ায় ঘটনায় থানায় মামলা ও অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাফিজ সাংবাদিকদের জানান, বুধবার দুপুরে কলারোয়ার গয়ড়া বাজার থেকে শিক্ষক আনছার আলিকে আটক করা হয়। তিনি চন্দনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা হিজলদি গ্রামের মৃত বাবর আলির ছেলে। থানায় দায়েরকৃত মামলার এজাহারে নির্যাতিত স্কুল ছাত্র আশিকুজ্জামানের খালা সাজেদা খাতুন উল্লেখ করেন, দেরিতে স্কুলে যাওয়ার জন্য চন্দনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনছার আলি ১৫এপ্রিল, শনিবার সকাল ৮টার দিকে বেতের লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি বেত্রাঘাত করেন আশিকুজ্জামানকে। স্কুলে দেরিতে আসার জন্য ১৫০টাকা জরিমানা হিসেবে চাওয়া হলে আশিক তা দিতে না পারায় দরজা-জানালা বন্ধ করে বেত দিয়ে পিটিয়ে তাকে নির্যাতন করা হয়। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কলারোয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয। এজাহারে আরও বলা হয়, পপি গাইড না কেনায় প্রধান শিক্ষক আশিকের উপর ক্ষুব্ধ ছিলেন। আশিকুজ্জামানের বাড়ি উপজেলার রামভদ্রপুর গ্রামে। পিতার নাম আশরাফুল জামান। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন সাজেদা খাতুন জানান। গত ১৭ এপ্রিল সাজেদা খাতুনের এজাহারটি থানায় মামলারূপে (মামলা নং-৩৮) রেকর্ড করা হয়। মামলাটি দন্ডবিধির ৩৪২/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৫০৬ ধারায় রুজু করা হয় বলে জানা গেছে।