কাদাকাটি ইউপি সদস্য অনুকূলের বিরুদ্ধে ভিজিএফ’র গম আত্মসাতের অভিযোগ


প্রকাশিত : জুলাই ১, ২০১৭ ||

আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনির কাদাকাটি ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড (খেজুয়ারডাঙ্গা) মেম্বর অনুকুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে ভিজিএফ’র গম আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার অনেকে এ প্রতিবেদককে জানান, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বর্তমান সরকার অসহায়, গরীব ও দুস্তদের মাঝে ১০ কে.জি করে ভিজিএফ এর গম বরাদ্দ দেন। সে মোতাবেক উপজেলা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান থেকে প্রয়োজনীয় গমও সরবরাহ করা হয়। ওই এলাকার অধিকাংশ নাগরিক সনাতন ধর্মালম্বীর হওয়ায় মেম্বর অনুকুল বিশ্বাস চতুরতার সুযোগ নিয়েছেন। অনেক নাগরিক জানেন ঈদ তো মুসলিমদের জন্য, ঈদে হিন্দুদের আবার গম বা চাল দেয় নাকি ? গ্রামের সহজ সরল জনগনের অনজ্ঞতার কারনে বুধবার সুচতুর মেম্বর গ্রাম পুলিশ রঞ্জন সরকারকে দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ৮বস্তা ভিজিএফ’র গম ভ্যান যোগে খেজুয়ারডাঙ্গা রবিউল ইসলাম মধুর মৎস ঘেরে রেখে দেয়। রাতে বিক্রয় করার পায়তারা করা কালিন স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে পেরে সাংবাদিক ও পুলিশে খবর দেয়। বিষয়টি যখন ব্যাপক জানাজানি হয় তখন মেম্বর পুলিশ ও সাংবাদিকে উপস্থিতি কথা জানতে পেরে গমগুলো গোপনে দ্রুত সরিয়ে ফেলে। এ বিষয়ে মৎস্য ঘের মালিক রবিউল ইসলাম মধুর কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি বাড়ির বাইরে ছিলাম, বাড়িতে এসে বিষয়টি জানতে পারি। গ্রাম পুলিশ রঞ্জন সরকারের সাথে স্থানীয় সাংবাদিকরা যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বুধবার ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য অনুকুল বিশ্বাসের নির্দেশে (বস্তা প্রতি ৬৫-৭০কেজি) ৮ বস্তা ভিজিএফ’র গম ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভ্যানে করে খেজুয়ারডাঙ্গা মধুর ঘেরে রেখে আসি। তিনি আরও বলেন, আমি সামান্য চৌকিদার, চেয়ারম্যান-মেম্বাররা যেভাবে নির্দেশ দেন আমি বা আমরা সেভাবে কাজ করি। এ বিষয়ে মেম্বার অনুকুল বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে, তিনি জানেন না বলে সাফ জানান। ওই দিন আমি সারাদিন সাতক্ষীরায় ছিলাম, আর ঘেরের বাসায় গমের বস্তা না, ওটা বালীর বস্তা। কাদাকাটি ইউপি চেয়ারম্যান দিপংকর কুমার সরকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঈদের গম বিতরণ শেষে যে গম উদ্বৃত্ত ছিল সেগুলো বুধবার সকল সদস্যের মাঝে ভাগ করে দিয়েছি। গম আত্মসাতের কথা আমি শুনেছি, এখনো বিস্তারিত জানতে পারিনি। এ বিষয়ে এলাকাবাসি দ্রুত তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।