ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি দখল করে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ বন্ধ ও কৃষকদের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : আগস্ট ৬, ২০১৭ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: বাঁকাল এলাকায় জোরপূর্বক কৃষকদের জমি দখল করে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ বন্ধ ও জমির মালিক নিরীহ কৃষকদের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন ক্ষতিগ্রস্ত জমির মালিক কৃষকেরা।
সংবাদ সম্মেলনে কৃষকদের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জমির মালিক আব্দুল কাদের। এ সময় তার সাথে বাবর আলী ঢালী, আবু বক্কর সরদার, জেহের আলী হাজরা, আসাদুল ইসলামসহ অন্যান্য জমির মালিকরা উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, আলিপুরের গডফাদার আব্দুস সবুর ও ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম নিজেদের হীন স্বার্থ হাসিলে বাঁকাল পেট্রোল পাম্পের দক্ষিণ পাশে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণের নামে কৃষকদের রেকর্ডীয় সম্পত্তি দখল করে মাটি বালি ফেলে ভরাট করার চেষ্টা চালায়। এ খবর জানতে পেরে গ্রামবাসি একত্রিত হয়ে তাদের ধাওয়া করলে সবুরসহ তার লোকজন পালিয়ে যায়। পরে অবৈধ ট্রাক টার্মিনাল বন্ধ ও কৃষকদের জমি রক্ষার লক্ষ্যে সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক, গডফাদার সবুর, ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামকে বিবাদী করে সাতক্ষীরা সদর সহকারী জজ আদালতে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি বিজ্ঞ আদালত শুনানীন্তে বিবাদীদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শনোর নোটিশ জারি করেন।
সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ট্রাক টার্মিনালের নির্মাণ কাজ বন্ধ করা না হলে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হকের আপ্রাণ প্রচেষ্টায় গড়ে ওঠা সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ ও স্থানীয় জমির মালিকরা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ট্রাক টার্মিনালের নির্মাণ কাজ বন্ধ করার দাবিতে গত ১১জুন এলাকাবাসী মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে। এছাড়া গত ১৭ জুন জেলা প্রশাসক মহোদয় নিজেই স্থানীয় একটি দৈনিক পত্রিকার বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে বলেন, ‘এখানে এ কাজ করা হলে যে ক্ষতি হবে তা আগে বোঝা যায়নি। শুরুতে জমির মালিকরা বাধা দিলে এ কাজ করতাম না। সমস্যা হলে তা বন্ধ করে দেওয়া হবে।’
কিন্তু জেলা প্রশাসকের এ বক্তব্যের পরও গডফাদার সবুর, রফিকুলরা রাতের আধারে চুরি করে মাটি ভরাটের কাজ করছে। শুধু তাই নয়, মিথ্যা গল্প সাজিয়ে গত ৩ জুলাই ১১ কৃষকসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩০-৪০জন কৃষকের নামে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করেছে।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কৃষকরা বলেন, সবুরের পাম্পের তেল বিক্রির জন্য কৃষকদের জমি দখল করে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের মধ্যেও ওই জায়গায় ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণে মতবিরোধ সৃষ্টি হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে কৃষকরা ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি দখল করে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ বন্ধ ও জমির মালিক নিরীহ কৃষকদের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।