প্রতারণাপুর্বক ভবানীপুর মৌজার জমি বিক্রির ষড়যন্ত্র


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৭ ||

 

শ্যামনগর প্রতিনিধি: মাঠ পরচা, হাল রেকর্ড ও খাজনার দাখিলাসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকার পরও একটি মহল প্রায় পাঁচ বিঘা পরিমাণ জমি বিক্রয়ের ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি উপজেলার নুরনগর ইউনিয়নের ভবানীপুর মৌজার। ইতোমধ্যে ষড়যন্ত্রপুবর্ক অন্যের ভোগ দখলীয় উক্ত সম্পত্তি বিক্রয়ের জন্য বিশেষ ওই মহলটি একই জমির খাজনা দাখিলা সংগ্রহের জন্য ইউনিয়ন ভূমি অফিসসহ বিভিন্ন মহলে ধর্ণা দিচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে শ্যামনগর উপজেলার নুরনগর ইউনিয়নের ভবানীপুর মৌজার এসএ ৩৭, ৩৮, ৩৯ এবং ৫৮ খতিয়ানের ৭৮, ৮০, ৮১, ৬৬, ৬৭সহ আরও কয়েকটি দাগের প্রায় ৪ একর ৯৩ শতক জমি গত ১৯৫৮ সাল থেকে পর্যায়ক্রমে গোলাম আহম্মদ গাজী ও তার পাঁচ পুত্র ভোগ দখল করে আসছে। পরবর্তীতে ১৯৯৪ সালে গোলাম আহম্মদ স্বীয় পুত্রদের নামে সমুদয় সম্পত্তি লিখে দেয়। সেই মতে উক্ত জমির মাঠ পশচাসহ হাল রেকর্ড হয় মরহুম গোলাম আহম্মদ গাজীর পাঁচ পুত্রের নামে। ৩১১৩ নং দলিলের ঐ জমি পাঁচ পুত্রের নামে বর্তমানে ৮১ নং খতিয়ানে রেকর্ডও হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে মরহুম গোলাম আহম্মদ গাজীর কন্যা আয়েশা বেগমের পুত্র আবু সাইদের নেতৃত্বে একটি মহল সম্প্রতি তার মামাদের ভোগ দখলীয় সম্পত্তির অনুকুলে খাজনার দাখিলা সংগ্রহের চেষ্টা করছে। আরও অভিযোগ উঠেছে আবু সাইদ তার মা’র নামে একটি পুরানো দলিল তৈরী পুবর্ক তার মামাদের দীর্ঘ দিনের ভোগ দখলীয় সম্পত্তি বিক্রয়ের ষড়যন্ত্র করছে।