যশোরে অং সান সু চি’র কুশ পুতুল দাহ


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৭ ||

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর সরকারি বাহিনীর নির্যাতন ও গণহত্যার প্রতিবাদে যশোরে সমাবেশ ও অং সান সু চি’র ৩০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট কুশ পুতুল দাহ করা হয়েছে।

সোমবার যশোরবাসীর সমন্বয় কমিটির ব্যানারে উপশহর ডিগ্রি কলেজ মাঠে এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।
সকাল ১০টায় কলেজ মাঠে যশোরের বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং ছাত্র-ছাত্রীরা নেন। বেলা সোয়া ১১টায় সু চি’র কুশ পুতুলে অগ্নিসংযোগ করা হয়।
সমাবেশে রোহিঙ্গাদের সমর্থনে এবং নিপীড়নকারী হিসেবে মিয়ানমার নেত্রী অং সান সু চিকে ভর্ৎসনা করে বক্তৃতা করেন যশোরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সিটি প্লাজার চেয়ারম্যান এস এম ইয়াকুব আলী, যশোর সংবাদপত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, গ্রামের কাগজ পত্রিকার সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, উপশহর ডিগ্রি কলেজের অ্যধক্ষ শাহিন ইকবাল, প্রেসক্লাব যশোরের দফতর সম্পাদক তৌহিদ জামান, আয়োজক কমিটির সদস্য কৃষিবিদ সিরাজুল ইসলাম মৃধা, জাতীয় ইমাম সমিতির মহাসচিব সাপ্তাহিক বজ্রকলম সম্পাদ মুফতি একেএম নূরুল আমিন, বিশিষ্ট কবি গীতিকার কাসেদুজ্জামান সেলিম, মণিরামপুর সমিতির সেক্রেটারি আব্দুল গণি, ফারিয়ার কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি সোহেল বিশ্বাস, সাংবাদিক আবুল বাশার মুকুল, ফোন বাজার সমিতির সভাপতি রাজু আহমেদ বাবু প্রমুখ।
বক্তৃতাকালে নেতারা বলেন, আমাদের জানা মতে, ৩০ ফুট উচ্চতাবিশিষ্ট অং সান সু চির কোনও কুশ পুতুল যশোরেই এই প্রথম দাহ করা হচ্ছে। আমরা এই বিশাল কুশ পুতুল দাহ করার মাধ্যমে বিবেকবান মানুষ হিসেবে তার নির্যাতন, নিপীড়ন এবং অমানবিক কর্মকাণ্ডের প্রতি তীব্র ঘৃণা প্রকাশ করছি। আমরা চাই, নির্যাতিত, ঘরবাড়ি ছাড়া রোহিঙ্গারা তাদের পিতৃভূমিতে ফিরে যাক।
নেতারা রোহিঙ্গাদের মানবিক আবেদনে সাড়া দেওয়ায় বাংলাদেশসহ অন্য রাষ্ট্রগুলোর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। একই সঙ্গে মিয়ানমারের সামরিক জান্তার ওপর চাপ সৃষ্টি করতে বিশ্ববিবেকের প্রতি আহ্বান জানান।
সমাবেশ থেকে দেশবাসীকে বার্মিজ সব পণ্য বর্জন করার দাবি জানানো হয়।