দু’বছর আগে ভেঙেছে কালিগঞ্জের দুদলী ব্রীজ: ঘটছে দুর্ঘটনা


প্রকাশিত : অক্টোবর ১১, ২০১৭ ||

নিয়াজ কওছার তুহিন: কালিগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে মাত্র ৮ কিলোমিটার দুরে মথুরেশপুর ইউনিয়নের দুদলী গ্রাম। কালিগঞ্জ-মুন্সীগঞ্জ সড়কের পাশর্^সড়ক হিসেবে দুদলী বাসস্ট্যান্ড থেকে রতনপুর বাজারে গিয়ে মিশেছে সড়কটি। গুরুত্বপূর্ণ ওই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করে দুদলী, মহিষকুড়, রতনপুর, রঘুরামপুর, খড়িতলা, কদমতলা, নূরনগরের হাজার হাজার মানুষ। দুদলীর এই জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কের যমুনা নদীর উপর নির্মিত সেতুর মাঝখানে ভেঙে যায় প্রায় দু’বছর পূর্বে। তাৎক্ষণিক ভাবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও সেটি মেরামতে কোন কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। বিগত ইউপি নির্বাচনের পূর্বে নিজ উদ্যোগে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থী সৈয়দ হেমায়েত আলী ছোট বাবু ক্ষতিগ্রস্ত ব্রিজটি মেরামতের ব্যবস্থা করেন। প্রায় দেড় বছর পর সেই স্থানটি আবারও ভেঙে গেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দ হেমায়েত আলী বিষয়টি উপজেলা এলজিইডি অফিসে ও পিআইও অফিসে জানিয়েছেন। এরপর প্রায় ৫ মাস পেরিয়ে গেলেও ব্রিজটি মেরামতে উদ্যোগ নেয়া হয়নি। এখানে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। স্থানীয় ব্যবসায়ী কাজী শফিউল আলম ও রাইসুল ইসলামসহ আরও কয়েকজন জানান, বেশ কয়েক মাস পূর্বে দুদলী ও পাশর্^বর্তী এলাকার মানুষের চলাচলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ব্রীজটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ সেটি মেরামত করেনি। কয়েকদিন আগে একটি শিশু ব্রিজের ভাঙা স্থান দিয়ে নদীতে পড়ে মারাত্মক আহত হয়। এছাড়াও রাতের আধারে এই ব্রিজ দিয়ে যাওয়ার সময় অজ্ঞতাবশত: অনেকেই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে আহত হচ্ছেন। এলাকাবাসি ব্রিজটি মেরামতের জন্য বারবার দাবি জানালেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোন ভ্রুক্ষেপ করছেন না। এজন্য এলাকাবাসির মাঝে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে।
এব্যাপারে জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দ হেমায়েত আলী ছোট বাবু জানান, আমি নিজ উদ্যোগে ব্রীজের ক্ষতিগ্রস্ত স্থানটি একবার মেরামত করেছি। পরবর্তীতে আবারও ভেঙে যাওয়ার পর পিআইও সাহেবকে জানিয়েছি। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ব্রীজটি মেরামত না করায় এলাকার মানুষের যাতায়াতে দূর্ভোগ হচ্ছে। তিনি এব্যাপারে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
জানতে চাইলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহরিয়ার মাহমুদ রঞ্জু বলেন, ব্রিজটি বহু আগে এলজিইডি কর্তৃপক্ষ নির্মাণ করেছে। ব্রিজ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় যাতায়াতে দুর্ভোগ হচ্ছে বলে এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানতে পেরেছি। এখন ব্রীজটি পূণরায় নির্মাণ করা প্রয়োজন। জনগণের দুর্ভোগ নিরসনে এব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।