অর্থের অভাবে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে না তালার মেধাবী ছাত্রী শামীমা’র


প্রকাশিত : অক্টোবর ১৩, ২০১৭ ||

মো. মুজিবুর রহমান, পাটকেলঘাটা: অনেক প্রচেষ্টার পর শেষ পর্যন্ত লক্ষ্যে পৌঁছালেও অর্থের অভাবে স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে না মেধাবী শিক্ষার্থী শামীমা খাতুনের। শামীমা খাতুন এ বছর রাজশাহী মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েছে। কিন্তু তার পরিবারের আর্থিক সামর্থ না থাকায় মেয়ের কলেজে ভর্তি করা ও তার লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। শামীমা খাতুন সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মাছিয়াড়া গ্রামের হত দরিদ্র মোশারাফ হোসেন ও রাবেয়া বেগমের মেয়ে। তার বাবা দিন মজুর ও মা গ্রামে গ্রামে ফেরি করে কাপড় বিক্রি করেন।
শামীমা খাতুনের মা রায়েবা বেগম জানান, শামীমা ২০১৭ সালে তালা মহিলা কলেজ থেকে থেকে এইচএসসি পরিক্ষায় জিপিএ-৪.৮৩ পেয়েছে, এসএসসি পরিক্ষায়ও সে গোল্ডেন ‘এ প্লাস’ পেয়েছিল। এ বছর সে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েছে। কিন্তু আর্থিক সামর্থ না থাকায় তার লেখাপড়া খরচ যোগানো সম্ভব হচ্ছে না।
শামীমা খাতুন জানান, তালা মহিলা কলেজে পড়ার সময় কলেজ খরচ, হোস্টেলে থাকা-খাওয়া খরচ দিত মহিলা কলেজ কর্তৃপক্ষ। তাঁর মা ও শিক্ষকদের সহযোগিতা এবং নিজের মেধা, প্রচেষ্টায় সে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েছে বলে জানায়।
তালা মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মো. আব্দুর রহমান জানান, মেয়েটি অনেক মেধাবী ও তার পরিবার হতদরিদ্র তাই কলেজের কর্তৃপক্ষ তার সার্বিক সহযোগিতা করেছেন। মেয়েটি রাজশাহী মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েছে। ভর্তি এবং পড়াশুনা খরচ চালানোর জন্য অর্থের প্রয়োজন। তাই সমাজের বিত্তবান ও দানশীল ব্যক্তির আন্তরিক সাহায্য কামনা করেছেন মেয়েটির পরিবার। মেধাবী শিক্ষার্থী শামীমাকে আর্থিক সাহায্যে দিতে সরাসরি ০১৯৪৩-৫১৬৭৯২ নম্বর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।