বেনাপোলে কমিউনিটি ক্লিনিকে মাসে চিকিৎসা নিচ্ছেন দুইহাজার নারী শিশু পুরুষ


প্রকাশিত : নভেম্বর ১৫, ২০১৭ ||

 

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি: যশোরের শার্শা-বেনাপোলে পল্লী গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো চিকিৎসা ক্ষেত্রে এলাকার মানুষের ব্যাপক উপকারে এসেছে। গ্রামের প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে মাসে চিকিৎসা নিচ্ছেন দুই হাজারও নারী শিশু পুরুষ। কমেছে শিশু ও মাতৃত্ব ঝুঁকির হার। উপকৃত হচ্ছেন গ্রামের মানুষ। সেবা বাড়াতে সরকারের আরো সহযোগিতা কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

যশোরের শার্শা উপজেলায় সাড়ে ৪লাখ নাগরিকের বসবাস। চিকিৎসা সেবায় রয়েছে একটিমাত্র সরকারি হাসপাতাল। গ্রামের মানুষের চিকিৎসা সেবায় উপজেলায় বাহাদুরপুর, পুটখালি, সামলাগাছি, কাগজপুকুর, যাদবপুর, নিজামপুর, সাদিপুর ঘিবা, বালুন্ডাসহ ৩৯টি কমিউনিটি ক্লিনিকে হাতের নাগালেই বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছেন অসহায় অবহেলিত ও খেটে খাওয়া দিন মুজুর। সরকারি হাসপাতালে মাসে অন্তত ১২হাজার মানুষ চিকিৎসা নিলেও কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা পাচ্ছেন মাসে প্রায় ৬০হাজার নারী শিশু বৃদ্ধসহ সাধারণ মানুষ। এমনটাই জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। সরকারের সহযোগিতাসহ হাতের নাগালে চিকিৎসা পেয়ে খুশি এলাকাবাসি। তবে ঔষধ ও ক্লিনিকের বেড বৃদ্ধিসহ ভালমানের ডাক্তার নিয়োগের দাবি জানান তারা।

শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আশোর কুমার সাহা বলেন, স্বাস্থ্য বান্ধব সরকারের বাস্তবায়নে শিশু ও নারীদের প্রাথমিক চিকিৎসায় কাজে আসছে কমিউনিটি ক্লিনিক। তবে ঔষধ সরবরাহ বৃদ্ধিসহ চিকিৎসা সেবার মান উন্নয়নে কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রভাইডারসহ উপসহকারি স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নিয়োগের পরিকল্পনার কথা উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।