বেনাপোলে ২০টি স্বর্ণের বারসহ দুই ভারতীয় নাগরিক আটক


প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১, ২০১৭ ||

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি: স্থল বন্দর বেনাপোল কাষ্টম চেকপোষ্ট দিয়ে শুক্রবার দুপুরে ভারতে প্রবেশকালে আবারও এক কোটি টাকা মূল্যের ২০টি স্বর্ণের বারসহ সনজিত বার্মা নাসিরুল হক নামে দুই ভারতীয় নাগরিককে আটক করেছে কাষ্টম শুল্ক গোয়েন্দা। আটক সনজিত বার্মা দিল্লি উত্তম নগর এলাকার মহেন্দ্রা মান্দার ছেলে এবং নাসিরুল হক কলিকাতা খিদিরপুর এলাকার নুরুল হকের ছেলে। তারা জানান, ঢাকা থেকে ২০টি স্বর্ণের বার নিয়ে দিল্লির উদ্দেশ্যে নেওয়া হচ্ছিল। উল্লেখ্য  একদিনের ব্যবধানে গত বুধবার দুপুরে ১০টি সোনার বারসহ ২জনকে আটক করে কাষ্টম গোয়েন্দা।  

বেনাপোল কাষ্টম ডেপুটি কমিশনার (শুল্ক গোয়েন্দা) আব্দুস সাদিক জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন শুক্রবার দুপুরে বেনাপোল কাষ্টম চেকপোষ্ট দিয়ে স্বর্নের চালান ভারতে পাচার হয়ে যাচ্ছে। এমন খবরে সীমান্ত এলাকায় ওঁৎপেতে থাকেন তারা। কাষ্টম তল্লাশি কেন্দ্রে প্রবেশমুখে সন্দেহভাজন দুইজনকে আটক করা হয়। পরে নাসিরুল হকের শরীরের বিশেষ স্থান থেকে উদ্ধার করা হয় ৪টি সোনার বার। পরে তাদের মলদরের ভিতরে রাখা আরো ১৬টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত সোনার ওজন ২কেজি বলে জানান কাষ্টম কর্তৃপক্ষ। আটক ভারতীয় সোনা পাচারকারীদের বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দসহ স্বর্নের চালান বেনাপোল কাষ্টম শুল্ক স্টেশনে জমা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তা।

সহকারি পরিদর্শক রাজস্ব ( কাষ্টম শুল্ক গোয়েন্দা) বেনাপোল মো. ইদ্রিস আলী বলেন, কাষ্টম গোয়েন্দা সদস্যরা সজাগ কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনি গড়ে তোলার কারণে একের পর এক সোনার চালান আটক হচ্চে। তবে প্রকৃত মালিকরা ধরা ছোয়ার বাইরে থাকায় কমছে না পাচার।