ব্যবসায়ীর সাড়ে ১৮ লাখ টাকা আতœসাতের অভিযোগ


প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭ ||

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: সদরের মুন্সিপাড়া এলাকার মোটর পার্টস ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেনের কাছ থেকে তিন কিস্তিতে সাড়ে ১৮ লাখ টাকা ধার নিয়ে আতœসাতের অভিযোগ উঠেছে এক ফুড ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। টাকা আতœসাতের অভিযোগে সদরের বিনেরপোতা এলাকার বিসিকের মেসার্স আব্দুল্লাহ ফুডস প্রোডাক্টের সত্ত্বাধিকারী এরশাদ আলীর বিরুদ্ধে জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী।

অভিযুক্ত প্রতারক এরশাদ আলী সদর থানার গোপীনাথপুর এলাকার মৃত.রহমত আলীর ছেলে। লিখিত অভিযোগে আলমগীর হোসেন উল্লেখ করেন, অভিযুক্ত এরশাদ আলীর সাথে ঘনিষ্ট সম্পর্কের সুবাদে ২০১৬ সালের ২০ মে, ৫ জুলাই ব্যবসার কথা বলে পৃথকভাবে ১০ লাখ টাকা ধার হিসেবে গ্রহণ করে। পরবর্তীতে ২৩ নভেম্বর পুনরায় আবার ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা ধার হিসেবে গ্রহণ করে। এ দিন তিনটি একশ টাকার নন জুডিশিয়াল স্টাম্পে লিখিতভাবে অঙ্গীকারনামা প্রদান করে ও অভিযুক্ত এরশাদ আলী প্রমাণস্বরুপ সাড়ে ৮ লাখ টাকার একটি চেক জমা রাখে। সব টাকা ২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বরের মধ্যে ফেরৎ দেওয়ার কথা। নির্ধারিত সময়ে টাকা ফেরৎ না দিলে অভিযুক্ত এরশাদ আলীর জমাকৃত চেক নিয়ে ব্যাংকে গেলে ব্যাংকে তার একাউন্টে টাকা না থাকায় চেকটি ডিসঅনার করে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি এরশাদ আলীকে জানালে সে তালবাহানা করতে থাকে। পরবর্তীতে গত সোমবার সকাল ১০ টার দিকে অভিযুক্তে ব্যবসা প্রতিষ্ঠাণ বিনেরপোতা বিসিকে মেসার্স আব্দুল্লাহ ফুডস প্রোডাক্ট প্রতিষ্ঠাণে গেলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ টাকা দিবে না বলে জানিয়ে মিথ্যে মামলার হুমকি দেয়।

ভুক্তভোগী আলমগীর হোসেন জানান, টাকা চাইলে গেলে মারপিট ও টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার নাটক সাজিয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মিথ্যে অভিযোগ দিয়েছে এরশাদ আলী।