কলারোয়ার মাদরা সীমান্তে চলছে অবৈধ খাটাল !


প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭ ||

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: সরকারের অনুমোদন না নিয়েই অবৈধভাবে খাটাল পরিচালনা করে কলারোয়ার রাজাপুরের মনিরুল এখন কোটিপতি। সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের মরহুম আব্দুল খালেকের ছেলে মনিরুল ইসলাম ভারতীয় গরু এনে খাটাল পরিচালনা করছেন। তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কোনো অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন মনে করেন না। প্রশাসনের কতিপয় সুবিধাভোগি কর্মকর্তার সহযোগিতায় তিনি দিনের পর দিন অবৈধভাবে এ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসির।

এলাকাবাসি জানান, মাদরা ও ভাদিয়ালি সীমান্তের চোরাই ঘাট দিয়ে প্রতিদিন ৩০০/৪০০ ভারতীয় গরু তোলা হয় মনিরুলের খাটালে। গরু আনা রাখালকে দেয়া হয় গরু প্রতি ২০০টাকা। কোরিডোর বাবদ ভ্যাট দিতে হয় প্রতি গরুতে ৫০০ টাকা। কিন্তু গরু ক্রেতাদের নিকট থেকে প্রতি গরুতে আদায় করা হয় ৩৫০০ টাকা। প্রতি গরু থেকে মনিরুলের পকেটে যায় সব খরচ বাদে অন্তত ১৫০০/২০০০ টাকা। এতে করে ৩০০ গরু থেকে তার দৈনিক আয় ৪ লক্ষ থেকে ৫লক্ষ টাকা। এলাকাবাসি গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে অভিযোগ তুলে ধরে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে আরো বলেন, আইনের চোখ ফাঁকি দিয়ে মনিরুল ইসলাম দিনদিন বেপরোয়া হয়ে অবৈধভাবে খাটাল চালায় কীভাবে? স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি না নিয়ে কীভাবে সে খাটাল চালায় ? তার খুটির জোর কোথায় ? প্রশাসন কী  দেখে না? এসব নানা প্রশ্ন করে এলাকাবাসি অবিলম্বে এব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এব্যাপারে মনিরুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।