দেবহাটায় ছাত্রীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টায় বাধা দেওয়ায় ফুফাকে পিটিয়ে জখম


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮ ||

দেবহাটা ব্যুরো: দেবহাটায় ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টায় বাঁধা দেওয়ায় পিটিয়ে জখমের খবর পাওয়া গেছে। জানা যায়, উপজেলার ফুলবাড়িয়া এলাকার আশরাফুল ইসলামের কন্যা ও পারুলিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে পারুলিয়া শেখপাড়া এলাকার রিয়াসাদ আলীর পুত্র ইমরান আলী (২৫) দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দিয়ে আসত। এসব প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শনিবার বিকাল ৪টার দিকে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ওই ছাত্রীকে ফুঁসলিয়ে ইমরান ও তার বন্ধু কাশেম মল্লিকের পুত্র শিমুল মল্লিক (২৪) সুকৌশালে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এসময় কিশোরীর আতœচিৎকারে পাশ্ববর্তী বাড়িতে থাকা তার ফুফা শেখ সামাদের পুত্র সুবাহান আলী(৫০) বাধা প্রদান করলে তারা পালিয়ে যায়। এঘটনার জের ধরে রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ছাত্রীর ফুফা সুবাহান আলী প্রতিদিনের ন্যায় স্থানীয় কাশেমের দোকানে চা খেতে আসে। এসময় দোকানের পাশে উৎপেতে থাকা ইমরান, শিমুল এবং তার সাথে থাকা অজ্ঞাত ৫/৭জন সন্ত্রাসী লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র দিয়ে সুবাহান আলীর উপর এলোপাতাড়ি হামলা চালিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এ হামলায় শিকার হওয়া সুবাহান আলীকে স্থানীয়রা মারাক্তক জখম অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দেবহাটা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।