”বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের কাছে আলোর দিশারীতে পরিণত হয়েছে”


প্রকাশিত : মার্চ ৮, ২০১৮ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ বাঙালি জাতির চিরন্তন অনুপ্রেরণার জীবন্তÍ উৎস। প্রকৃত অর্থে ৭ই মার্চের ভাষণ বাংলাদেশের স্বাধীনতার মৌলিক দলিল। বাঙালির বিশ^ জয়ের অমর স্লোগান যা আজ বিশ^ ইতিহাসের এক অনন্য দলিল, ২০১৭ সালের ৩১ অক্টোবর ঐতিহাসিক ৭-ই মার্চের ভাষণকে ইউইিউনেস্কোর ‘মেমোরি অব দ্য’ ওয়াল্ড রেজিস্ট্রার’ এ অর্ন্তভুক্তির মাধ্যমে বিশ^ প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি লাভ করায় দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের আহবানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকালে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।
অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য মিসেস রিফাত আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, শেখ সাহিদ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান বাবু, ডা. মোখলেছুর রহমান, প্রচার সম্পাদক শেখ নুরুল হক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এড. স. ম গোলাম মোস্তফা, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম শওকত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাজান আলী, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু সায়ীদ, সাধারণ সম্পাদক মো. সাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল ইসলাম রেজা, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদেকুর রহমান সাদেক, অতিরিক্ত পিপি এড. আব্দুল লতিফ, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সাহানা মুহিদ, সদর উজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, এপিপি এড. তামিম আহম্মেদ সোহাগ, পৌর কাউন্সিলর শেখ আব্দুস সেলিম, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মনজুর হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মীর মোস্তাক আলী, সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী আক্তার হোসেন, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাহেদ পারভেজ ইমন, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক শেখ হারুন উর রশিদ।
এসময় বক্তারা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষণ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে বিশ^। আজ ৪৫ বছর পরেও বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের আবেদন বাঙালির কাছে অটুট আছে। লেখক ও ইতিহাসবিদ জেকব এফ ফিল্ড’-এর বিশ্বসেরা ভাষণ নিয়ে লেখা গ্রন্থে এই ভাষণ স্থান পেয়েছে। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্ববাসির কাছে এবং বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের কাছে আলোর দিশারীতে পরিণত হয়েছে। তিনি এ ভাষণ দিয়েছিলেন ঔপনিবেশিক পাকিস্থানী দুঃশাসন থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্তি দেওয়ার জন্য। ১৯৪৮ সালে ভাষার দাবিতে আন্দোলন শুরু করার সময়ই বঙ্গবন্ধু বুঝে গিয়েছিলেন স্বাধীনতা ব্যতীত এই জাতির চূড়ান্ত মুক্তি মিলবে না। তিনি আরো বলেন, রেসকোর্সের জনসমুদ্রে দেওয়া জাতির পিতার এই কালজয়ী ভাষণে ধ্বনিত হয়েছিল বাংলার গণমানুষের প্রাণের দাবি। এই ভাষণে তিনি বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতার জন্য ঐক্যবদ্ধ করেন। আবার সশ¯্র সংগ্রামের দিক-নিদের্শনাও দিয়ে যান।