জেলায় বিএনপি-জামাতের ২ নেতাকর্মীসহ আটক ৬৭


প্রকাশিত : এপ্রিল ১৩, ২০১৮ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: জেলায় বিএনপি-জামায়াতের ২ নেতাকর্মীসহ ৬৭জনকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় বিভিন্ন স্থান থেকে ৩২ পিচ ইয়াবা, সাতশ’ ১৬ বোতল ফেন্সিডিল, ৫০০ গ্রাম গাজা ও ৩টি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত জেলার আটটি থানার বিভিন্নœ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।
জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ওসি মিজানুর রহমান জানান, সদর থানায় ২৪ জন, কলারোয়া থানায় ৭ জন, তালা থানায় ৬ জন, কালিগঞ্জ থানায় ৮ জন, শ্যামনগর থানায় ৯ জন, আশাশুনি থানায় ৭জন, দেবহাটা থানায় ৩ জন ও পাটকেলঘাটা থানায় ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
দেবহাটা প্রতিনিধি জানান, দেবহাটায় পুলিশের অভিযানে গাজাসহ ১ জন আসামী আটক হয়েছে। আটককৃত আসামীর বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় একটি মামলা হয়েছে। রাত ৯টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর গ্রামের হাবিবুল্লাহ গাজীর ছেলে সুজন হোসেন (২৪) কে উত্তর সখিপুর এলাকা থেকে ১শত গ্রাম গাজাসহ আটক করেন। তার বিরুদ্ধে এসআই হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে দেবহাটা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
দেবহাটা প্রতিনিধি আরো জানান, দেবহাটায় পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ ১ জন ও ওয়ারেন্টের ৩ আসামী আটক হয়েছে। বুধবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার নাংলা এলাকা থেকে নাংলা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে আরিফুল ইসলাম সজল (১৯) কে ১০ পিচ ইয়াবাসহ আটক করে। এছাড়া অপর পৃথক অভিযানে সাতক্ষীরা সদর থানার মামলা নং জিআর- ১২৬/১৬ এর ওয়ারেন্টের আসামী গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত হামজা গাজীর ছেলে শহিদুল ইসলাম (৩২) ও দেবহাটার তিলকুড়া গ্রামের মৃত আজিজার রহমানের ছেলে শেখ হাফিজুল ইসলাম (২৫) কে সিআর- ২১৮/০৬ নং মামলার ওয়ারেন্টের আসামী হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
কলারোয়া প্রতিনিধি জানান, কলারোয়ায় এক জামায়াত নেতা ও ফেন্সিডিলসহ এক মহিলাকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো উপজেলার যুগিখালী ইউনিয়নের কামারালী গ্রামের মনির উদ্দীন সরদারের পুত্র জামায়াত নেতা বজলুর রহমান (৪০) ও লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের কাশেম কারিগরের স্ত্রী মোছা.আনোয়ারা খাতুন (৪৫)।
আশাশুনি ব্যুরো জানান, আশাশুনিতে ২২ পিস্ ইয়াবাসহ বিভিন্ন মামলার ৬ আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। থানা সুত্রে জানাগেছে, বুধবার রাতে আশাশুনি থানা পুলিশ উপজেলার বড়দলের মাদক ব্যবসায়ী শুকুর আলী ঢালীর স্ত্রী ফিরোজা বেগম (৪৬)কে তার বাড়ি থেকে আটক করে। তার নিকট থেকে ২২ পিস্ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ সময় ফিরোজার বাড়িতে মাদক ক্রয় ও সেবন করতে আসা পার্শ্ববর্তী বুড়িয়া গ্রামের নগেন্দ্র নাথ সরকারের পুত্র মাদকসেবী হিমাদ্রী শেখর (২৪), আব্দুস সামাদের পুত্র সোহেল (২৮) ও সুভাষ রায়ের পুত্র উজ্জ্বল (২৩)কে আটক করে থানা হেফাজতে নেয়। তাদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ১০(০৪)১৮ নং মামলা দায়ের করা হয়েছে। একই রাতে উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের নাকতাড়া বাজার এলাকা থেকে নাছিমাবাদ গ্রামের মৃৃত খোদাবক্স মোড়লের পুত্র আনোয়ারুল ইসলাম ওরপে টুকু বক্স (৩৫)কে গ্রেপ্তার করে। সে বাকেরগঞ্জ থানার জিআর-২২৬/১২নং মামলা ২ বছরের বিনাশ্রম সাজা ও ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামী। অপরদিকে, ওই রাতে উপজেলার প্রতাপনগরের মৃত গফুর সরদারের পুত্র বিএনপি নেতা মনিরুজ্জামান ছট্টু (৪৭) কে আটক করা হয়। তাকে আশাশুনি থানার ৬ (১)১৮ নং নাশকতা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।
তালা সংবাদদাতা জানান, তালা থানা পুলিশের নিয়মিত অভিযানে নাশকতা মামলার আসামী ও নাশকতা সৃষ্টিকারী কে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায় আগোলঝাড়া গ্রাম হতে নাশকতা মামলার আসামী ও নাশকতা সৃষ্টিকারী মো. আশরাফ আলী মোড়ল (৪৫) কে আটক করা হয়।