ভোটারা যাতে নিরাপদে ভোট দিতে পারেন তার ব্যবস্থা করছে নির্বাচন কমিশন: প্রধান নির্বাচন কমিশনার


প্রকাশিত : মে ৭, ২০১৮ ||

পত্রদূত ডেস্ক: খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটাররা যাতে স্বত:স্ফুর্তভাবে এবং নিরাপদে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন তার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন। এ লক্ষ্যে খুলনা বিভাগের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানগুলো দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা রবিবার সকালে খুলনা সার্কিট হাউজ সম্মেলনকক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন-২০১৮ উপলক্ষে বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, নির্বাচন পরিচালনার কাজে কোন গাফিলতি ও পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ পাওয়া গেলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। একই সাথে কোন নিরাপরাধ ব্যক্তি যেন হয়ারানির শিকার না হয় সেদিকেও তীক্ষè নজর রাখতে হবে।
তিনি শনিবার বিকেল থেকে খুলনা নগরীতে সরেজমিন পরিদর্শনের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন, শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী আমেজ দেখে মনে হয়েছে সবকিছু নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় চলছে। জনগণের মধ্যে সহনশীলতা আছে। তবে ভবিষ্যতে কোন রকম অস্থিতিশীল পরিবেশ যাতে তৈরি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার এবং বৈধ অস্ত্রের প্রদর্শন বন্ধ রাখতে হবে। জনগণের আস্থা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীই নির্বাচন কমিশনের মূল শক্তি। তাদের দায়িত্বশীল কার্যক্রমে খুলনায় একটি শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্পন্ন হবে।
সভায় খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। এতে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি মো. দিদার আহম্মেদ, খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. হুমায়ুন কবীর, বিজিবি’র সেক্টর কমান্ডার তৌহিদুল ইসলাম, র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক খন্দকার রফিকুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান, পুলিশ সুপার মো. নিজামুল হক মোল্যাসহ এনএসআই, ডিজিএফআই, আনসার ও অন্যান্য বিভাগের প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় উপস্থিত আইনশৃঙ্খলা ও গোয়েন্দা বাহিনীর প্রধানরা তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রস্তÍতি তুলে ধরেন এবং নিরপেক্ষ একটি নির্বাচন উপহার দেয়ার অঙ্গীকার করেন।