দেবহাটায় গৃহবধুকে নির্যাতনের ঘটনায় থানায় মামলা


প্রকাশিত : মে ১৮, ২০১৮ ||

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটা উপজেলার সুশীলগাতী গ্রামের মৃত দ্বীন মোহাম্মাদের মেয়ে সোনিয়া পারভিন মিতা (৩৭) তার স্বামীর বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় নারী ও নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। যার দেবহাটা থানায় মামলা নং ৮/২৭। সোনিয়া পারভিন মিতা জানান, তার দীর্ঘ ১৮ বছর আগে কলারোয়া উপজেলার যুগীখালী গ্রামের মনিরউদ্দীন মোড়লের ছেলে আশরাফুল আলমের সাথে তার বিয়ের পরে তার স্বামী দেবহাটা উপজেলার সখিপুর হাজী কেয়ামউদ্দীন মেমোরিয়াল মহিলা কলেজে ইতিহাস বিষয়ে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করে। কিছুদিন পরে তার স্বামী ফাতেমা তুজ জোহরা নামে কলেজের এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে এবং তাকে না জানিয়ে ওই ছাত্রীকে বিয়ে করে। একপর্যায়ে তার স্বামীকে নিয়ে কলেজে আন্দোলন শুরু হলে তাকে কলেজ থেকে বহিস্কার করা হয়। পরে ফাতেমা তুজ জোহরা গত ৩১-১০-২০০৪ সালে আশরাফুলকে তালাক প্রদান করে। এরপর কলারোয়াতে আশরাফুল একটি কলেজে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করে। পরে তার স্বামীর চারিত্রিক অধ:পতনের কারণে শারমিন নাহার রুপসা নামে আবারো এক কলেজ ছাত্রীকে বিয়ে করে। আশরাফুলের নৈতিক অধ:পতনের কারণে পুনরায় বিবাহ করায় সে এর প্রতিবাদ করলে তাকে শারিরীকভাবে বেদম মারপিট করায় মিতা গত ৮-২-২০১৮ তারিখে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে তার স্বামীর নামে দেবহাটা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী-২০০৩)এর ১১(গ) ধারায় মামলা দায়ের করে। মিতা এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।