নগরঘাটায় কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি


প্রকাশিত : জুলাই ১০, ২০১৮ ||

নগরঘাটা (পাটকেলঘাটা) সংবাদদাতা: তালা উপজেলার নগরঘাটা ইউনিয়নের পোড়ার বাজারে গত কয়েকদিনে কাঁচা মরিচের দাম কয়েক দফা বেড়েছে। সপ্তাহ খানেক আগে কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে ১৫০ টাকা ১৬০ টাকায়। সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি কেজি কাঁচা মরিচের দাম ৪০ থেকে ৬০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২২০ টাকায়।
বিক্রেতারা বলছেন, বর্ষা মৌসুমের কারণে আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বাজারে যে পরিমাণ কাঁচা মরিচ আসছে তা প্রতিদিনের চাহিদার তুলনায় অনেক কম। চাহিদা ও সরবরাহে ঘাটতির কারণে কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে।
সোমবার (৯জুলাই) সকালে নগরঘাটাসহ আশপাশের ইউনিয়নের বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।
পোড়ার বাজারের সবজি বিক্রেতা সুমন হোসেন বলেন, গত কয়েকদিনে কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে। সরবরাহ কম। বর্ষার পানি উঠে গেছে বেশিরভাগ জমিতে। এ জন্য দাম বেড়েছে। আমরা বেশি দামে পাইকারি বাজার থেকে কিনছি, তাই বিক্রিও করতে হচ্ছে বেশি দামে। কেনার উপর ভিত্তি করে বিক্রি করি।
বাজারে সবজি কিনতে এসে মিঠাবাড়ি গ্রামের ইয়াছিন বলেন, সিজন শেষে দাম একটু বাড়তে পারে। তাই বলে সিজনের ৫০/৬০ টাকার কাঁচা মরিচের এখনই ২০০ থেকে ২২০ টাকা হবে? তাহলে সারাবছর কাঁচা মরিচের দাম কত হবে?
তিনি অভিযোগ করেন, প্রতিটি সবজি বিক্রেতার দোকানেই যথেষ্ট পরিমাণ কাঁচা মরিচের মজুদ আছে। এমনিতেই ৬০ টাকা কেজির নিচে কোনো সবজি মেলে না। তার ওপর কাঁচা মরিচের দাম এতো বেশি। বিক্রেতারা সিন্ডিকেট করে কাঁচা মরিচের দাম বাড়িয়েছেন এমনটাই দাবি তার।
ত্রিশ মাইল মোড়, পুলেরহাটসহ পোড়ার বাজারে হোটেলে ক্রেতারা সিংগুড়া ছোলার সাথে কাঁচা মরিচ খেতে চাইলে দিতে চায় না। হোটেল মালিক বলেন, মরিচের দাম ২২০ টাকা কেজি। কিভাবে আমি তোমাদের কাঁচা মরিচ দেবো। হোটেল মালিক বলেন, তিনি প্রতি বাজারে ৪/৫ কেজি করে কাঁচা মরিচ ক্রয় করেন এখন ১ কেজি ক্রয় করেন।