একপশলা বর্ষণ


প্রকাশিত : আগস্ট ১৮, ২০১৮ ||

মোজাক্কির খান

বন্ধ দুয়ারে হঠাৎ কট্ কট্ শব্দ,
কার আত্মচেড়া ডাক যেন এ-হৃদয়ে কাঁপন তুলে
কে যেন ডাকে মিহি সুরেথথথ
যার অপেক্ষায় কতকাল ঘুমঘোরে ঘূর্ণায়মান!
এলে কি সেই তুমি?
আমার ভাঙা হৃদয়ে হৃদয় লাগাতে
নাকি এলে খেলার চলে মন নিয়ে খেলতে!
আমি তো শ’খণ্ডে খণ্ডিত পারদ ওঠা এক আয়না,
আমাকে জুড়াবার প্রয়াসে প্রকৃতিও হার মেনেছে
তবে কেন এই অসময়-অবেলায় কড়া নাড়ছো?
নাড়িয়ে যাচ্ছো আমার ভাবনার ভিত!
আমি জীবনযুদ্ধে পরাজিত এক যোদ্ধা
যার নেই কোন মনোবল
নেই চেতনার সুতীক্ষ্ণ বল্লম,
এই তোমাকে কি দেবো বলো!
সময়ের দূর্বিপাকে সবকিছুই যে বিলীন!
যখন সমস্ত লেনাদেনা চুকিয়ে দিয়ে
অন্তঃকক্ষ বন্ধ করে দিয়েছিথথথ
সিলগালা করেছি সময়ের সংকীর্ণতায়,
তখন তুমি এলে!
বড্ড দেরি করেই যেন এলে!
তোমার এই আচমকা উপস্থিতি আমাকে আন্দোলিত
করলেও,
ভাবিয়ে তুলেছে বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের সাতটি বিস্ময়ের মতো!
অথচ একদিন তোমার খুঁজেই ফেরারি ছিলামথথথ
ছিলাম তোমার ধ্যানে ধ্যানমগ্ন
আর তুমি ছিলে কারো মনকুঞ্জে মনোহরিণী,
হুকুমের তাঁবেদারথথথ
যখন রাবণপুরীর শৃঙ্খলাবদ্ধ জীবন পেছনে ফেলে নতুন করে নবরূপে বাঁচতে এলে,
আমার নিষ্প্রাণ দেহে প্রাণ এলো!
বয়ে গেলো একপশলা বর্ষণ,
হেসে উঠলো গুমোটে পৃথিবী
খেয়ালের পশরা ধুলোয় লুটে,
মনে বাজে বিউগলের সুর!