শ্যামনগরে ইউপি সদস্য লাল্টুকে হত্যা করতে ৫ লক্ষ টাকা চুক্তি: পরিকল্পনা ফাঁস


প্রকাশিত : আগস্ট ২৫, ২০১৮ ||

শ্যামনগর (সদর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর উপজেলায় রমজাননগর ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ইউপি সদস্য মো. আব্দুল হামিদ লল্টু হত্যা পরিকল্পনা ফাঁস হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিনি নিরাপত্তা চেয়ে শ্যামনগর থানায় ৬ জনের বিরুদ্ধে ৯৩৫ নং জিডি করেছেন। আব্দুল হামিদ লাল্টু টেংরাখালী গ্রামে মৃত মান্দার গাজীর ছেলে। জিডি সূত্র মতে, ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পরে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী গোলাখালী গ্রামে মৃত তফিল উদ্দীন গাজীর ছেলে আব্দুল বারী গাজী তাকে বিভিন্ন সময়ে খুন জখম করার জন্য ভয়ভীতি ও হুমকি দিতে থাকে। ইতোমধ্যে একই ইউনিয়নের মরাগাং গ্রামের হীরেশ মন্ডলের পুত্র ভোলানাথ মন্ডল সুন্দরবনে মাছ ধরার সময় বনদস্যু জাকির বাহিনী মুক্তিপণের জন্য তাকে অপহরণ করে। এক পর্যায়ে ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দিয়ে ভোলানাথ রেহাই পায়। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভোলানাথ মন্ডল বনদস্যু জাকির বাহিনী প্রধান জকির এবং সহযোগী সোরা গ্রামের শহর আলী মোল্যার ছেলে করিম মোল্যা ও টেংরাখালী গ্রামে মফিজ উদ্দীন ভাংগীর ছেলে মজিদ ভাংগীসহ ২৮ জনকে আসামী করে শ্যামনগর থানায় গত ২০ আগস্ট ২২ নং মামলা করেন। পুলিশ করিম মোল্যা ও মজিদ ভাংগী কে গ্রেফতার করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। এতে থলের বিড়াল বেরিয়ে আসে। ধৃতরা ইউপি সদস্য আব্দুল হামিদ লাল্টুকে খুন করার জন্য জিডি ভুক্ত আসামী আব্দুল বারী গাজী, নুর ইসলাম গাজী ও জামির আলী জামু গাজীর কাছ থেকে ৫লক্ষ টাকা চুক্তি করে পুলিশের কাছে অকপটে স্বীকার করে। এ বিষয়ে শ্যামনগর থানায় ওসি ইলিয়াস হোসেন জিডি ও মামলার কথা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি তদন্ত চলছে।