স. ম আলাউদ্দীনের জন্মদিন


প্রকাশিত : August 29, 2018 ||

এসএম শহীদুল ইসলাম
মিঠাবাড়ির শ্যামল মাটিতে বেড়ে ওঠা
বেলিফুলের গাছ থেকে ঝরে পড়া
একটি ফুল গতকাল আমাকে ডেকে বলেছে-
২৯ আগস্ট স. ম আলাউদ্দীনের জন্মদিন
আমি যেন কবিতায় স. ম আলাউদ্দীনের
জন্মদিনে তার শুভেচ্ছার কথা লিখি।

মিঠাবাড়ির কোমল মাটির শ্যামল শোভা পেরিয়ে
আসাননগরে আসতেই মা ও শিশু কেন্দ্র থেকে
একটি নবজাতক আমাকে বলেছে-
আমি যেন কবিতায় স. ম আলাউদ্দীনের জন্মদিনে
তার শুভেচ্ছা বার্তা পৌছে দিই।

কয়েক কদম পার হতেই অবশ পড়ে থাকা
একটি জীর্ণ কারখানার ভিতর থেকে
চিৎকার দিয়ে দরাজ গলায় একজন লোহার শ্রমিক
আমাকে বললো-আমি যেনো কবিতায় স. ম আলাউদ্দীনের
জন্মদিনে কারখানার প্রতিটি ইট কণার শুভেচ্ছা বাণী পৌছে দিই।
আমি যেন কবিতায় শ্রমিকের প্রতিবিন্দু ঘামের
শুভেচ্ছার কথা লিখি।

সামনে অগ্রসর হয়ে ডান দিকে ফিরতেই
বঙ্গবন্ধু পেশাভিত্তিক স্কুলের শত শত
কোমলমতি শিশুর কোলাহলে আমি চমকে উঠলাম
কন্ঠে তাদের বারুদ ফোটা স্লোগান-
‘বারে বারে আসুক ফিরে তোমার জন্মদিন
শুভ শুভ শুভ দিন, আলাউদ্দীনের জন্মদিন
রঙে রঙে মন রঙিন, দিনটি হোক অমলিন’।

উ™£ান্ত পথিকের ন্যায় আমায় দেখে ওরা
দলবেঁধে এসে বলেছে-
আমি যেন কবিতায় স. ম আলাউদ্দীনের
জন্মদিনে তাদের কথা লিখি।
শত শত শিশুর উল্লাসে কাঁপা স্লোগানের সুরের আবেশে
ফিরে আসতেই নারকেলতলায় গেলাম থমকে
সেখানে শত শত ট্রাকের জ্বলন্ত ইঞ্জিনের
তপ্ত ধোয়া বাতাসে মিশে যেন বলছে-
আমি কবিতায় স. ম আলাউদ্দীনের কথা লিখি।

ফিরছি আমি আনমনা এক উদাসী বাউল
চলতে চলতে চলে এসেছি চেম্বারের সামনে
চেম্বার আমায় বললো ডেকে
ওগো পথিক থামলে কেন?
লিখবে নাকি কবিতা? যদি লিখো মোর কথা
তার আগে লিখো স. ম আলাউদ্দীনের নাম।
আমার প্রতিষ্ঠাতা তিনি, দিও তাকে সালাম।
স. ম আলাউদ্দীনের জন্মদিনে আমি যেন
কবিতায় চেম্বারের শুভেচ্ছা বার্তা পৌছে দিই।
আমি যেন জানিয়ে দিই স. ম আলাউদ্দীনের শোণিতে গড়া
চেম্বারের ঐতিহ্যগাঁথা ইতিহাসের কথা।

দেশের অর্থনীতির খোলা জানালা
ভোমরা স্থল বন্দরের প্রতিটি অনু-পরমাণুর সাথে
মিশে আছেন স. ম আলাউদ্দীন, আজ তার জন্মদিন,
ভোমরার সহ¯্র শ্রমিকের ঘামে ভেজা কষ্টগুলো আমাকে বলেছে-
আমি যেন কবিতায় স. ম আলাউদ্দীনের কথা লিখি।

ফিরে এলাম পত্রদূতের কাছে, আমার ঠিকানায়-
পত্রদূতের প্রতিটি শব্দ ডাগর চোখে
প্রত্যাশার আলো ছড়িয়ে আমাকে বলেছে-
আমি যেন কবিতায় তাঁর প্রতিষ্ঠাতা
স. ম আলাউদ্দীনের কথা বলি,
আমি যেন মানবিকতার জ্যোৎস্নাস্নাত পথে চলা
স. ম আলাউদ্দীনের দেখানো পথে চলি
মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাদীপ্ত মানুষের সাথে মিলি
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভের প্রতিটি অনু-পরমাণুর মর্যাদা সমুন্নত রাখতে
লক্ষ শহীদের রক্তে ভেজা ঐ পতাকা উড্ডয়মান রাখতে
গণতন্ত্র স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সমুজ্জ্বল রাখতে
পত্রদূতের পাতায় পাতায় যেন জনতার কথা বলি
যাত্রা শুরুর সেই অঙ্গীকারে সর্বদা থাকি যেন অবিচল
চেতনায় আলাউদ্দীন বুকে সাহস মনে বল
রঙে রঙে মন রঙিন, দিনটি হোক অমলিন,
শুভ শুভ শুভ দিন, স. ম আলাউদ্দীনের জন্মদিন।