স্ত্রীকে দিয়ে প্রেমের ফাঁদ, দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি, স্বামী গ্রেপ্তার


প্রকাশিত : আগস্ট ২৯, ২০১৮ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: স্ত্রীকে দিয়ে প্রেমের ফাঁদ পেতে দুই লাখ টাকা চাঁদা নেওয়া হল না সিরাজুল ইসলাম মোড়লের (৪৫)। নিজেই পুলিশের খাচায় ধরা পড়লেন। আর স্ত্রী জাহানারা খাতুন পালিয়ে পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পেলেও মামলা থেকে রেহাই পায়নি। গ্রেপ্তার হওয়া সিরাজুল বাড়ি যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার কাথন্ডা গ্রামে।
পুলিশ জানায়, সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল এলাকার যুবক গাউসুল আযম সাকিলের সাথে যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার কাথন্ডা গ্রামের সিরাজুল ইসলাম মোড়লের স্ত্রী জাহানারা খাতুন মোবাইলে পরকীয়া করে। রোববার রাতে কোরবানির মাংস খাওয়ার জন্য সাকিলকে বাড়িতে দাওয়াত করে জাহানারা খাতুন। সেই রাতে মাংস খাওয়ার জন্য তার বাড়িতে গেলে জাহানারা খাতুন ও সিরাজুল ইসলাম মোড়ল ঘরে আটকে রাখে সাকিলকে। এরপর সাকিলের পরিবারের সদস্যদের কাছে মোবাইল করে দুই লাখ টাকা দাবি করে।
সাকিলের বাবা সিরাজুল ইসলাম বিষয়টি সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশকে অবহিত করে। পুলিশ কৌশলে সাকিলের পরিবারের পক্ষ থেকে জাহানারা খাতুনের সাথে মোবাইলে কথা বলে বিকাশ নাম্বার নেয়। তার দেওয়া নাম্বারে ১০ হাজার টাকা বিকাশ করে পুলিশ।
তারপর কেশবপুর থানা পুলিশের সহতায় সাদা পোশাকধারী পুলিশ বিকাশ নাম্বারটি খুঁজে সেখানে অবস্থান নেয়। একপর্যায়ে বিকাশ কাউন্টার থেকে টাকা নেয়ার সময় পুলিশ সিরাজুল ইসলাম মোড়লকে গ্রেপ্তার করে। তবে, পালিয়ে যায় জাহানারা খাতুন।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় সাকিলের বাবা বাদী হয়ে সিরাজুল ও তার স্ত্রী জাহানারার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।