ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত ও অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে আবারো নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে: নজরুল ইসলাম


প্রকাশিত : আগস্ট ২৯, ২০১৮ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষির্কী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে শহরের পরিবহন কাউন্টার এলাকায় বাংলাদেশ তাঁতীলীগ জেলা শাখার আয়োজনে ও সদর উপজেলা তাঁতীলীগের ব্যবস্থাপনায় জেলা তাঁতীলীগের আহবায়ক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম শওকত হোসেন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু সায়ীদ, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আকবর আলী, জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও জজ কোর্টের পিপি এড. ওসমান গণি, জেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. আব্দুল মান্নান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদিকা ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব লায়লা পারভীন সেঁজুতি, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক শেখ মনিরুল হোসেন মাসুম, জেলা তাঁতীলীগের সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান তুহিন প্রমুখ। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা তাঁতীলীগের সদস্য আসাদুজ্জামান আসাদ, সদর উপজেলা তাঁতীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জাকির হোসেন, পৌর আওয়ামীলীগ নেতা সবুর খান, আব্দুর রশিদ প্রমুখ। সদর উপজেলা তাঁতীলীগের উজ্জল সানা, সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা তাঁতীলীগের যুগ্ম আহবায়ক শেখ তৌহিদ হাসান। অনুষ্ঠানে দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন মাও. জাকির হোসেন।
এসময় তিনি বলেন, ‘১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির ইতিহাসে এক বেদনাবিধূর ও কলঙ্কজনক অধ্যায়। জাতির পিতার সারাজীবনের স্বপ্ন ছিল ‘সোনার বাংলা’ গড়ার। আমাদের দায়িত্ব হবে বঙ্গবন্ধুর অসম্পূর্ণ কাজকে সম্পূর্ণ করে দেশকে একটি সুখী ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করে জাতির পিতার সেই স্বপ্ন পূরণ করা। ঘাতকচক্র বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তাঁর স্বপ্ন ও আদর্শের মৃত্যু ঘটাতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ ও তিতিক্ষার দীর্ঘ সংগ্রামী জীবনাদর্শ বাঙালি জাতির অন্তরে অনুকরণীয় হয়ে আছে। ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত ও অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে আবারো নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করার আহ্বান জানান তিনি।



error: Content is protected !!