শ্যামনগরে দ্বৈত নাগরিকের জমি রেজিস্ট্রি বন্ধের দাবি


প্রকাশিত : অক্টোবর ২, ২০১৮ ||

রমজাননগর (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর উপজেলার ৬ নং রমজাননগর ইউনিয়নের কালিঞ্চী গ্রামের আব্দুল গফ্ফার তরফদারের কন্যা মোছা. ফরিদা পারভীন ভারতের বাসিন্দা ও সেদেশের ভোটার । কিন্তু বর্তমানে সে বাংলাদেশে জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে পৈত্রিক সম্পত্তি দলিল সম্পাদন ও রেজিষ্ট্রী করতে পায়তারা করছে। এ বিষয়ে তার স্বামী নকিপুর গ্রামের শেখ সৈয়দ আলীর পুত্র শেখ আকিকুর রেজা জেলা রেজিষ্ট্রার ও সচিব, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ ও ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গফ্ফার তরফদারের বড় কন্যা মোছা. ফরিদা পারভীন প্রথমে আব্দুর রউফ, ২য় আকিকুর রেজা এবং ৩য় জাকির হোসেন নামীয় মোট তিনজনের সাথে বিবাহ করে। ২য় স্বামীর ঘরে ২টি কন্যা সন্তান জন্ম গ্রহন করে। ফরিদা ২টি সন্তান রেখে ভারতে অবস্থানরত তার চাচা মো. কাসেম আলী তরফদারের পুত্র মো. জাকির তরফদারের সাতে বিবাহ করে এবং ভারতের পশ্চিম বঙ্গ রাজ্যের বারাসাত থানার ১৩নং ওয়ার্ডের রামকৃষ্ণপুর এলাকায় ভোটার হন। তার ভোটার নং জছখ১৯৮২৭২১৯। বাংলাদেশী জাতীয় পরিচয়পত্র নং ৮৭১৮৬৯৪৯০৪১৯৭। ফরিদা একই সাথে বাংলাদেশ ও ভারতের ভোটার। বর্তমানে সে বাংলাদেশে এসে নিজেকে বাংলাদেশী নাগরিক সাজিয়ে মিথ্যা ঠিকানা দিয়ে অফিসকে ভুল তথ্য দিয়ে শ্যামনগর সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে দলিল সম্পাদন ও রেজিষ্ট্রী করার জন্য পায়তারা করছে। তার ২য় স্বামী ২টি কন্যা সন্তানের ভবিষ্যতের দাবিতে জমি রেজিস্ট্রি বন্দ ও ফরিদার বাংলাদেশের নাগরিত্ব বাতিলের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছে।