উন্নয়ন মেলার দ্বিতীয় দিনে শিক্ষার্থীদের উপচে পড়া ভিড়


প্রকাশিত : অক্টোবর ৬, ২০১৮ ||

এসএম শহীদুল ইসলাম: ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় সাতক্ষীরায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা-২০১৮। উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় এগিয়ে চলা অদম্য বাংলাদেশের এমডিজি বাস্তবায়নের সাফল্য ও এসডিজি অর্জনে গৃহীত পদক্ষেপসমূহের সাথে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগের সাফল্য সম্ভাবনার বর্ণিল প্রদর্শনী চলছে মেলার স্টলসমূহে।
সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে ৪ থেকে ৬ অক্টোবর তিন দিনব্যাপী চলমান এ মেলার দ্বিতীয় দিনে সকাল ১০টায় মেলা প্রাঙ্গণের মূলমঞ্চে স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে ‘ডিজিটার বাংলাদেশ বিনির্মাণে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল তিনটায় ছিল সরকার গৃহীত উন্নয়ন কর্মকান্ডের ওপর বিশেষ প্রদর্শনী। সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শাহ্ আব্দুল সাদী। সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. জাহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে ও পরিচালনায় সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার এসএম আব্দুল্লাহ আল মামুন। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত ল্যাব সহকারী শরিফুল ইসলাম, আলিপুর আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান, ডিবি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. এমাদুল ইসলাম, বল্লী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক, সোনার বাংলা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আমিনুর রহমান, ডিবি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস মিম ও তুজুল হাইস্কুলের শিক্ষার্থী মেহেদি হাসান। সেমিনারে সদর উপজেলার দশটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে আলিপুর আদর্শ মহিলা কলেজ, ডিবি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, এ করিম মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, বল্লী হাইস্কুল, গোবরদাড়ি জোড়দিয়া স্কুল এন্ড কলেজ, সোনার বাংলা হাইস্কুল, তুজুলপুর হাইস্কুল, মির্জানগর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বৈকারি ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ঘোনা ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
সন্ধ্যায় ছিল বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান। উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আলোকসজ্জাসহ স্থাপন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ এর মডেল, সড়ক ও জনপদ বিভাগের উন্নয়ন চিত্র, কৃষি বিভাগের সাফল্য, গণপূর্ত বিভাগের সাফল্য, পাওবোর উন্নয়ন, পুলিশ বিভাগের সেবা-পরিসেবা, মা ও শিশু কেন্দ্রের সেবাসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরা হয়েছে মেলায়।
জেলা প্রশাসন আয়োজিত এ মেলা প্রাণবন্ত ও কার্যকর মাধ্যম হিসেবে জনসাধারণের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। মেলায় আনন্দঘন পরিবেশে সরকারি বেসরকারি দপ্তরসমূহ তাদের উন্নয়ন ভাবনা তুলে ধরছে।
আজ ৬ অক্টোবর মেলার শেষ দিন। আজ থাকছে উন্নয়ন কর্মকান্ড প্রদর্শন ও আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।