কামাল হোসেনরা পুরাতন মাইনাস টু’র ষড়যন্ত্রে নেমেছে: রাশেদ খান মেনন


প্রকাশিত : অক্টোবর ২৯, ২০১৮ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি বলেন, কামালরা শেখ হাসিনাকে মাইনাসের কথা বললেও আসলে পুরাতন মাইনাস টু’র ষড়যন্ত্রে নেমেছে। ঐক্যফ্রন্ট’র কোন ভবিষ্যৎ নেই। ওরা কিছুই করার ক্ষমতা রাখে। আর ক্ষমতার চাবিকাটি ডাকাতদের হাতে জনগণ কোনদিন তুলে দেবেনা। বিএনপি’র মাথায় কাঁঠাল ভেঙে কোষ খাবার চেষ্টা করছে কামাল, মান্না, রবসহ একটি চক্র। তাদের এ আশা কোনদির পূরণ হবেনা। তিনি আরও বলেন, নির্বাচন নয়, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করাই ঐক্যফ্রন্টের লক্ষ্য। কারণ তারা ভালোভাবেই জানে যে, তাদের সাতদফা দাবি পূরণ হবার নয়। তারপরও এনিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে তারা।
রবিবার বিকালে তালা উপজেলা চত্তরে সামাজিক ন্যায্যতা-সমতা প্রতিষ্ঠাসহ মুুক্তিযুদ্ধেও চেতনায় অসাম্প্রদায়িক জনগণতান্ত্রিক আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দাবিতে ওয়ার্কার্স পার্টির সম্মেলন উপলক্ষে এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ এখন এগিয়ে চলেছে, সেটা নিজেদের দিকে তাকালেই বোঝা যায়। মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে। কৃষকদের উৎপাদিত ধান ও সবজি দেশেরে চাহিদা পূরণ করে বিদেশে রপ্তানী হচ্ছে। সাতক্ষীরার আম বিদেশ যাচ্ছে, ওষুধও রপ্তানি করা হচ্ছে।
ডিজিটাল বাংলাদেশে এখন প্রত্যেকের হাতে স্মার্টফোন শোভা পাচ্ছে। স্থানীয় (তালা-কলারোয়া আসনের) সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ বিগত ৫ বছর এলাকার উন্নয়নে সোচ্চার ছিলেন। আগামী নির্বাচনেও তিনি এ আসনে ১৪ দলের প্রার্থী হবেন বলে ঘোষণা করেন সরকারের এ মন্ত্রী।
তালা উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক প্রভাষক সরদার রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাতক্ষীরা জেলা সভাপতি ও সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা স্বপন কুমার শীলের পরিচালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর পিআরও দীপংকর সাহা দীপু, সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক উপাধ্যক্ষ মহিবুল্লাহ মোড়ল, সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অধ্যাপক সাবীর হোসেন এবং এড. ফাহিমুল হক কিসলু।
রাশেদ খান মেনন বলেন, কৃষক এখন স্বয়ংসম্পূর্ণ। দেশের চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশ এখন বিদেশে চাল রপ্তানী করে। শ্রমিকরা ন্যায্য মজুরী পায়। তারপরও কিছু অপূর্ণতা আছে। সেই অপূর্ণতা দুর করে দেশকে আরও সমৃদ্ধিশালী করার সময় এসেছে। এটা সম্ভব হবে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আপনাদের রায়ের ওপর। যদি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা পরিবর্তন হয় তাহলে এদেশ আবারও পিছিয়ে যাবে। লুটপাটকারী, খুনি, জঙ্গিবাদ, স্বাধীনতা বিরোধীরা তখন দেশ পরিচালনা করবে। যেটি ১৯৭৫’র পর জিয়াউর রহমান করেছিল। তার হাত ধরেই সকল রাজাকার যুদ্ধাপোরাধীরা পুনর্বাসিত হয়েছিল। ঠিক এমনি একটা চক্রান্ত শুরু হয়েছে এখন। নিজেকে বঙ্গবন্ধুর একান্তভাজন পরিচয় দিয়ে চলে আসা সেই ড. কামাল জামাত-বিএনপির সাথে হাত মিলিয়ে এ চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি স্বাধীনতার বিপক্ষে থাকা শক্তির মাথায় বসে কলকাঠি নাড়ছেন। কিন্তু আপনারা জনগণ। সকল ক্ষমতার উৎস আপনারা। তাই আগামী সংসদ নির্বাচনে আপনাদের রায়ের ওপরেই নির্ভর করছে কোন সরকার ক্ষমতায় আসবে। স্বাধীনতার স্বপক্ষের ও উন্নয়নে বিশ্বাসী শেখ হাসিনার সরকার নাকি ওই যুদ্ধপোরাধী লুটপাটকারী জামাত-বিএনপির সরকার। তিনি সকল ভেদাভেদ ভুলে দলমত নির্বিশেষে দেশের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে, শান্তির স্বার্থে আবারো নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনার আহ্বান জানান।
এরআগে বিকাল ৩টায় তালা প্রেসক্লাবে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বক্তব্য রাখেন।
কলারোয়ার লাঙ্গলঝাড়া বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাস্টার জাহাঙ্গীর গ্রেপ্তার
নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়া উপজেলার ৪নং লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন (৫০)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার বিকেলে লাঙ্গলঝাড়া বাজার থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। জাহাঙ্গীর হোসেন লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের শামছুর রহমানের পুত্র ও লাঙ্গলঝাড়া সম্মিলিত হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক। থানা সূত্র জানায়, কলারোয়া থানার নাশকতা মামলার আসামি জাহাঙ্গীর হোসেনকে লাঙ্গলঝাড়া বাজার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। রবিবার সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে আটক জাহাঙ্গীরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।