দেবহাটায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার চেষ্টা!


প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ ||

দেবহাটা ব্যুরো: দেবহাটায় যৌতুকের দাবিকৃত টাকা না পেয়ে রোজিনা খাতুন (২৫) নামের এক গৃহবধূকে বেধড়ক মারপিটের পর বাড়ির ছাদ থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে পাষন্ড স্বামী, শাশুড়ি ও সতীন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার দক্ষিণ পারুলিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত রোজিনা খাতুন সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। তিনি সাংবাদিকদের জানান, গত ৪ মাস আগে তার বিয়ে হয় দক্ষিণ পারুলিয়া গ্রামের মোসলেম মোড়লের ছেলে আনারুল মোড়লের সাথে। বিয়ের মাস পেরুতে না পেরুতেই যৌতুকের দাবি করে রোজিনাকে মারপিট করতে থাকে তার স্বামী আনারুল। মারপিটে বাধ্য হয়ে রোজিনা তার স্বামী আনারুলে হাতে যৌতুকের ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে শালিস বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়। সম্প্রতি তার স্বামী আনারুল আবারো তাকে ৫০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবি করে করে নির্যাতন চালাতে শুরু করে। কিন্তু যৌতুকের দাবিকৃত ৫০ হাজার টাকা যোগাড় করতে না পারার বিষয়টি শনিবার তার স্বামীর বাড়িতে যেয়ে বললেই তাকে বেধড়ক মারপিট শুরু করে তার পাষন্ড স্বামী আনারুল, শাশুড়ি আয়েশা বিবি ও সতীন রাশিদা খাতুন। মারপিটের এক পর্যায়ে নিজেকে বাঁচাতে ভিকটিম রোজিনা দৌড়ে তার স্বামী আনারুলে বাড়ির ছাদে উঠলে তাকে নির্মমভাবে ছাদ থেকে ফেলে দেয় স্বামী আনারুলসহ সতীন রাশিদা ও শাশুড়ি আয়েশা বিবি। এঘটনায় আহত রোজিনাকে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় সখিপুরস্থ উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে রোজিনার পরিবার।