কেশবপুরে বুড়িভদ্রা নদীর পাড়ের লক্ষ লক্ষ টাকার গাছ কেটে সাবাড় করছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা


প্রকাশিত : জানুয়ারি ৬, ২০১৯ ||

এম এ রহমান, কেশবপুর (যশোর): যশোরের কেশবপুরে স্থানীয় এক শ্রেণির প্রভাবশালী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বুড়িভদ্রা নদের দু-পাড়ের লক্ষ লক্ষ টাকার গাছ কেটে সাবাড় করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার সকালে কেশবপুর শহর থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে মজিদপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ব্রীজ থেকে শুরু করে কুশুলদিয়া ও মির্জাপুর গ্রামের শেষ সীমানা পর্যন্ত প্রায় ২ কিলামিটার বুড়ভদ্রা নদের দু-পাড় সরেজমিনে ঘুরে দেখতে পাওয়া যায় স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি নদের দু-পাড়ের মেহেগনী, শিরিশসহ বিভিন্ন প্রজাতির লক্ষ লক্ষ টাকা মুল্যের গাছ কেটে বিক্রি করছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার কুশুলদিয়া গ্রামের হালিম সরদার, জনাব আলী সরদার, মির্জানগর গ্রামের সামছুর রহমান, আব্দুল মান্নান, মুক্তার আলী, মুনতাজ আলী, নুরে আলম, নওয়াব আলীসহ এলাকার একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট গত কয়েক দিন ধরে পাওবো কে না জানিয়ে প্রকাশ্যে বুড়িভদ্রা নদের দু-পাড়ের সরকারী জায়গার গাছ কেড়ে বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
বুড়িভদ্রা নদের পাড়ের গাছ কাটার ব্যাপারে উক্ত ব্যক্তিদের কাছে জানতে চাইলে তারা এই প্রতিনিধিকে বলেন, গাছগুলো আমাদের লাগানো তাই আমরা বিক্রি করছি। এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা মোঃ সাইদুর রহমান জানান, বুড়িভদ্রা নদের সরকারী পাড় থেকে কেউ গাছ কাটছে কিনা তা আমার জানা নেই। তবে বিষয়টি নিয়ে তিনি খোঁজখবর নিবেন বলে জানান।
কেশবপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ এনামুল হক বলেন, সরকারী সার্ভেয়ার দিয়ে না মাপা পর্যন্ত কেউ যদি নদের পাড় থেকে গাছ বিক্রি বা কর্তন করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।