শ্যামনগরে জেলা পরিষদের লক্ষাধিক টাকার গাছ চুরি


প্রকাশিত : জানুয়ারি ১০, ২০১৯ ||

শ্যামনগর প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের মালিকানাধীন প্রায় লক্ষাধিক টাকা মুল্যমানের চারটি গাছ রাতের আঁধারে চুরি হয়ে গেছে। গত ২ জানুয়ারী রাতের কোন এক সময়ে শ্যামনগর উপজেলার নুরনগর ইউনিয়নের হরিপুর এলাকায় জেলা পরিষদের শতবর্ষ পুরানো পুকুরের পাড় হতে প্রায় পঞ্চাশ বছরেরও বেশী বয়সী ঐ চারটি গাছ চুরি করে নিয়ে যায় দুবৃর্ত্তরা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানিয়েছে হরিপুর গ্রামের গোলাম বারীল ছেলে আনার সাদ এবং রামচন্দ্রপুর বা তালুকদি গ্রামের হলো গাজীর নেতৃত্বে কতিপয় দুবৃর্ত্ত ভ্যানযোগে গাছ চারটি নিয়ে যায়।
স্থানীয় আহম্মদীয়া মাদ্রাসার সুপার নুর ইসলামসহ ঐ মাদ্রাসার কয়েকজন শিক্ষক এবং পরিচালনা পরিষদের কয়েক সদস্য জানান পার্শ্ববর্তী এতিমখানা এবং মাদ্রাসার উন্নয়নকল্পে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম মোস্তফা মুকুল প্রধানমন্ত্রীর নামে গাছ চারটি মাদ্রাসা কৃতপক্ষকে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু নির্বাচনের মাত্র দুই দিনের মধ্যেই আনার সাদ এবং হলো গাজীর নেতৃত্বে দুবৃর্ত্তরা লক্ষাধিক টাকা মুল্যমানের ঐ গাছগুলো চুরি করে নিয়ে আত্মসাৎ করায় স্থানীয়দের মধ্যে অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে।
এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইদুর রহমান্ বাবু বলেন, আনার, রফিকুল এবং হলো প্রকাশ্যে ঐ গাছগুলো নিয়ে যায়। গাছগুলেঅ জেলা পারিষদের মালিকানাধীন হওয়ায় তিনি এবিষয়ে জেলা পরিষদের মাননীয় চেয়ারম্যান এবং সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এবিষয়ে জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম মোস্তফা মুকুল বলেন, জাতির জনকের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দেশনেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে মৃত প্রায় গাছগুলো স্থানীয় মাদ্রাসার উন্নয়নকল্পে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। কিন্তু তার আগেই যারা এমন দুষ্কর্ম করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা পরিষদের সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানাচ্ছি।