ইটাগাছার ফল ব্যবসায়ী মনিরুলকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রতিপক্ষ ব্যবসায়ীর দ্বারা সাতক্ষীরার ইটাগাছা হাটের মোড়ের ফল ব্যবসায়ী শেখ মনিরুল ইসলামকে মাদকসহ বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির করার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ উঠেছে। তিনি এ ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন।
সংবাদ সম্মেলনে শহরের ইটাগাছা এলাকার মৃত শেখ আব্দুর রউফের ছেলে ফল ব্যবসায়ী শেখ মনিরুল ইসলাম তার লিখিত বক্তব্যে জানান, তিনি দীর্ঘ ৩০ বছর যাবত সুনামের সাথে শহরের ইটাগাছা হাটের মোড়ে ফলের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। সম্প্রতি তার দোকানের পাশে আশাশুনি উপজেলার গাজীপুর এলাকার মৃত বছির উদ্দীন গাজীর ছেলে মোমিনুর রহমান মুকুল একটি ফলের দোকান করেছেন। ব্যবসা শুরু করার পরপরই তিনি হিংসার বশবর্তী হয়ে মনিরুলকে ব্যবসায়িকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র চালাতে থাকেন। যাতে মনিরুল ব্যবসা বন্ধ করে দেয় এবং মুকুল একচেটিয়া ব্যবসা করতে পারেন। এরই জের ধরে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি মোমিনুর রহমান মুকুল নিজেই মনিরুলের দোকানে এক পোটলা গাজা রেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মনিরুলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এরপর পুলিশ স্থানীয়দের কাছে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারে এটি একটি সাজানো নাটক। অত:পর পুলিশ মনিরুলকে মুক্তি দেন।
তিনি আরো বলেন, ওই কুচক্রী মুকুল আমাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে না পেরে এখন ভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমানে আমাকে বিভিন্ন পেন্ডিং মামলায় জড়িয়ে দেয়ার পায়তারা করছেন বলে আমি গোপন সূত্রে জানতে পেরেছি। তিনি বলেন, আমি একজন শান্তি প্রিয় অসহায় গরীব ছোট ব্যবসায়ী। আমাকে এভাবে বারবার হয়রানী করা হলে আমি ব্যবসায়িকভাবে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হবো। এতে করে আমার পরিবার পরিজন অর্থকষ্টে ভুগবেন। কিন্তু এই মুকুল অন্যায় লোভ ও লাভের বশবর্তী হয়ে আমাকে সর্বশান্ত করার জন্য এ ধরণের ন্যাক্কারজনক ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন।
এমতাবস্থায় তিনি তার প্রতিপক্ষ ফল ব্যবসায়ী মুকুলের হাত থেকে রক্ষা পেয়ে যাতে শান্তিপূর্ণভাবে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারেন সেজন্য তিনি সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।



error: Content is protected !!