তালতলায় প্রতিবন্ধী ধর্ষণ মামলার বাদীকে হুমকির অভিযোগ


প্রকাশিত : এপ্রিল ৩, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: শহরের তালতলায় প্রতিবন্ধী শিশুকন্যা ধর্ষণ মামলার বাদীকে হুমকি ধামকির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
জানা গেছে, তালতলা এলাকার আব্দুল লতিফ ও তার স্ত্রী ইটভাটায় কাজ করে। কাজ করার জন্য ওইদিন প্রতিবন্ধী মেয়েটি বাড়িতে গেলে একই এলাকার ইন্তাজ আলীর পুত্র সানজিদুল ইসলাম চানাচুর খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে মেয়েটিকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে তার বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে খাটের তলায় লুকিয়ে রাখে। এলাকার লোকজন সাজেদুলের বাড়িতে যেয়ে তার খাটের তলা থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এরপর সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে সময় মেয়েটি হাসপাতালে নিয়ে যেতে সাজেদুল ও তার বাহিনী বাঁধা দেয় এবং তাদের ব্যাপক মারপিট করে।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা বাদী হয়ে সাতক্ষীরা থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। পুলিশ আসামীকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। কিন্তু গত ১৫ দিন পূর্বে ওই সানজিদুল জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়ি ফিরে আসে। এরপর থেকে প্রায়ই মামলার বাদী ধর্ষিতার পিতা আব্দুল লতিফকে খুন জখমের হুমকি প্রদর্শন করে যাচ্ছে।
ধর্ষিতার পিতা আব্দুল লতিফ জানান, তার কন্যাটি এখনো পর্যন্ত অসুস্থ। অথচ ওই লম্পট জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর তার মাতা জায়েদা খাতুন ও স্বামী পরিত্যাক্তা বোন সুমা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মোবাইল দিয়ে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি প্রদর্শন করছেন। মামলা তুলে না নিয়ে তাকে সহ পরিবারের অন্য সদস্যদের খুন জখমের হুমকি প্রদর্শন করছেন বলে দাবি করেছেন আব্দুল লতিফ। তিনি এ বিষয়ে তার পরিবারের নিরাপত্তা এবং ওই ধর্ষকের কঠোর শাস্তির দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।