কালিগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসারের বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ


প্রকাশিত : এপ্রিল ৯, ২০১৯ ||

আহাদুজ্জামান আহাদ: কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. জাহাঙ্গীর হোসেনের বিরুদ্ধে কর্তব্য পালনে অবহেলার অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের পশ্চিম নারায়নপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোক্তার হোসেন গাজীর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৈয়েবুর রহমানের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ৩ এপ্রিল বুধবার বেলা ১২টার দিকে ভুক্তভোগী মোস্তাফিজুর রহমান সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে যান। সে সময় জরুরী বিভাগে দায়িত্বে ছিলেন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. জাহাঙ্গীর হোসেন। মোস্তাফিজুর রহমান অত্যন্ত গুরুতর জখম অবস্থায় সেখানে অবস্থান করা সত্ত্বেও ডা. জাহাঙ্গীর হোসেন তাকে অবজ্ঞার দৃষ্টিতে দেখে জরুরী সেবা না দিয়ে প্রায় ৪০ মিনিট অন্য টুকিটাকি কাজে ব্যস্ত থাকেন। এক পর্যায়ে তিনি তাকে চিকিৎসা না দিয়ে হাসপাতালের পার্শ্ববর্তী চায়ের দোকানে দিয়ে খোশ গল্পে মেতে উঠেন।
বাধ্য হয়ে ভুক্তভোগী মোস্তাফিজুর রহমান নিজে চায়ের দোকানে গিয়ে ডা. জাহাঙ্গীর হোসেনকে ডাকলে তিনি জানান ইমার্জেন্সী এটেনডেন্ট না আসা পর্যন্ত কিছুই করা যাবে না। চিকিৎসা সেবা না পেয়ে ভুক্তভোগী মোস্তাফিজুর রহমান পাশ্ববর্তী একটি বে-সরকারি ক্লিনিকে যেয়ে চিকিৎসা সেবা নেন।
এঘটনায় মোস্তাফিজুর রহমান কর্তব্যে অবহেলা ও চিকিৎসা বঞ্চিত হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে ডা. জাহাঙ্গীর হোসেনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মোস্তাফিজুর রহমান যখন জরুরী বিভাগে আসেন তখন আমি অন্য এক একটি কাজে ব্যস্ত ছিলাম। পরবর্তীতে কাজ শেষ করে আমি তাকে ৫ মিনিট বসতে বলে চায়ের দোকানে যাই। পরে জরুরী বিভাগে এসে তার কোন খবর পাইনি। মোস্তাফিজুর রহমান স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৈয়েবুর রহমানের কাছে অভিযোগ দিলে আমি সরি বলে বিষয়টি মিটিয়ে নিয়েছি।