বর্ণিল আয়োজনে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বর্ষবরণে প্রাণোচ্ছ্বাস


প্রকাশিত : April 17, 2019 ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: বর্ণিল আয়োজনে ব্যাপক উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে নানা অনুষ্ঠানমালা। বাঙালি জাতির পুরাতন ইতিহাস ও লোকজ ঐতিহ্য বহনের মধ্য দিয়ে এবারের বর্ষবরণে প্রাণোচ্ছ্বাসে মেতে ওঠে জেলাবাসি। বাংলা নববর্ষের দিনটি বাঙালি জাতির জন্য সবচেয়ে আনন্দময়, সবচেয়ে রঙিন উৎসব। এই দিনটি ঘিরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গ্রহণ করা হয় দু’দিনব্যাপি বর্ণাঢ্য কর্মসূচি। এ উপলক্ষে রবিবার সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য বৈশাখী মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়। এ শোভাযাত্রায় বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাঙালিয়ানা সাজ ও হারিয়ে যাওয়া গ্রামীণ লোকজ ঐতিহ্য নিয়ে বিভিন্ন সংগঠন অংশ নেয়। মঙ্গল শোভা যাত্রাটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সাতক্ষীরা শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানে মিলিত হয়। এসময় বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে ২দিনব্যাপি মেলার উদ্বোধন করা হয়। বৈশাখী মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. বদিউজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইলতুতমিশ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান বাবু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মেরিনা আক্তার, সহকারি পুলিশ সুপার হুমাউন কবির, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেবাশীষ চৌধুরী, পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এসএম আফজাল হোসেন, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আব্দুল খালেক, পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, সাতক্ষীরা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মাকসুদুর রহমান, সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ জিয়াউল হক, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মমতাজ আহমেদ বাপ্পি, জেলা শিক্ষা অফিসার এসএম আব্দুল্লাহ আল-মামুন, সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সমরেশ কুমার দাশ, জেলা তথ্য অফিসার মোজাম্মেল হক, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর ইসলাম, পৌর কাউন্সিলর শেখ শফিক উদ-দৌলা সাগর, পৌর কাউন্সিলর কাজী ফিরোজ হাসান, শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু, ফারহা দীবা খান সাথী, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা শেখ আবু জাফর মো. আসিফ ইকবাল, দৈনিক আজকের সাতক্ষীরা পত্রিকার সহ-সম্পাদক শেখ তহিদুর রহমান ডাবলু, নবারুণ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আমিনুর রহমান উল্লাস প্রমুখ। এছাড়া পৌর দিঘিতে হাঁস ধরা, সাঁতার প্রতিযোগিতা, শহিদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে হাডুডু খেলা, লাঠিখেলা, মোরগ লড়াই, সঙ্গীত প্রতিযোগিতাসহ দিনব্যাপি বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া সাতক্ষীরার সকল গ্রাম গঞ্জে পহেলা বৈশাখের আয়োজন পালনের লক্ষ্যে শুরু হয়েছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা। গ্রামের মানুষের ভাবনা ভোরে ঘুম থেকে উঠা, নতুন জামা কাপড় পড়া এবং আত্মীয়স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়া। বাড়িঘরগুলো সুন্দর করে সাজানো। বিশেষ খাবারের ব্যবস্থাও করা এবং সবাই একটি নির্দিষ্ট স্থানে মিলিত হয়ে নানান রকম খেলার আয়োজনের মাধ্যমে পুরাতন বছরকে বিদায় জানিয়ে নতুন বছরকে বরণ করে নিয়েছে। আলোচনা সভা শেষে মনোঙ্গ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয় এবং পুরস্কার বিতরণ করা হয়। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য সচিব শেখ মুশফিকুর রহমান মিল্টন।