আশাশুনিতে ঘুর্ণিঝড়ে অর্ধশতাধিক বিদ্যুতের খুঁটি বিধ্বস্ত বজ্রপাতে স্কুল ছাত্রী নিহত, ফসল ও ঘরবাড়ির ক্ষয়ক্ষতি


প্রকাশিত : মে ১৬, ২০১৯ ||

আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনিতে প্রবল গতির কালবৈশেখী ঘূর্ণিঝড়, বৃষ্টিপাতসহ বজ্রপাতে বসতবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মৌসুমি ফসল ও বিদ্যুৎ লাইনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বজ্রপাতে এক স্কুল ছাত্রী ও একটি গরুর মৃত্যুসহ অর্ধশতাধিক বিদ্যুতের মেইন লাইনের খুঁটি পড়ে বিভিন্ন এলাকা অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে। প্রচন্ড ঘূর্ণিঝড়ে উপজেলার আশাশুনি, বুধহাটা, কুল্যাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বুধহাটা-চাপড়া বিদ্যুৎ লাইনের ৩৩ কেভি, ১১ হাজার ও ৪৪০ ভোল্টেজ ক্ষমতা সম্পন্ন লাইনের খুঁটিসহ বিভিন্ন স্থানের অর্ধশতাধিক খুঁটি পড়ে ও ভেঙে বিদ্যুৎ সংযোগ একেবারেই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। যার মধ্যে ৩৩ কেভি ৩৭টি ও অন্য লাইনের ২৬টি মোট ৬৩টি খাম্বা ভেঙে ও উপড়ে পড়ে গেছে। ট্রান্সফরমা ৪টি ও মিটার শতাধিক নষ্ট হয়ে গেছে। ওই দিন বিকাল ৫টা থেকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শতাধিক শ্রমিক ও কর্মকর্তা লাইনের খাম্বা পুনস্থাপনসহ সংযোগ লাগাতে কাজ করে যাচ্ছে। পল্লী বিদ্যুতের আশাশুনি সাব জোনাল অফিসের এজিএম জানান, আমাদের সর্ব শক্তি কাজে লাগিয়ে কাজ করা হচ্ছে। ঝড়ের তান্ডবে উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নে দুই শতাধিক কাচা ও অর্ধকাচা-পাকা বসতঘর সম্পূর্ণ বা আংশিক বিধ্বস্ত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপজেলার সকল ইউনিয়নের সঠিক তথ্য এখনো পাওয়া না গেলেও এমনিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এলাকাবাসির ধারনা। এ দিকে, বজ্রপাতে বুধহাটা ইউনিয়নের শে^তপুর গ্রামের ৮ম শ্রেণি পড়–য়া আছমা খাতুন এবং কুল্যা ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামে কালাম সরদারের একটি গরু মারা গেছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সোহাগ খান জানান, এখনো ইউপি চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে ঝড়ে ক্ষয়ক্ষতির তালিকা পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে।
আশাশুনিতে পত্রিকা পরিবেশক ভীস্মদেবের ঠাকুর দাদা আর নেই
আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনিতে পত্রিকা পরিবেশক ভীস্মদেব মন্ডলের ঠাকুর দাদা বিভূতিভূষণ মন্ডল (৮৮) বার্ধক্যজনিত কারণে পরলোক গমন করেছেন। তিনি খাজরা ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামের মৃত শ্যামাচরণ মন্ডলের ছেলে। মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১১টার দিকে তিনি নিজ বাসভবনে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। ওইদিন সন্ধ্যায় পার্শ্ববর্তী শ্মশাণে তার অন্তেষ্ট্রিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বিভূতি ভূষণের মৃত্যুতে আত্মার শান্তি কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন আশাশুনি কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ ও পত্রিকা পরিবেশকবৃন্দ।