প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, সম্পদ: শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী


প্রকাশিত : জুন ২, ২০১৯ ||

পত্রদূত ডেস্ক: শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, সম্পদ। ভিন্ন দৃষ্টিতে না দেখে তাদের সমাজের মূল স্রোতের অংশ হিসেবে দেখতে হবে। সরকার প্রতিবন্ধী ভাতাসহ তাদের সকল সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করেছে।
তিনি শনিবার বিকেলে খুলনার গোয়ালখালীস্থ পিএইচটি সেন্টারে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের দৃষ্টি ও বাক শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের মাঝে ঈদের পোষাক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারের পাশাপাশি যার যার অবস্থান থেকে নিজ সন্তান মনে করে প্রতিবন্ধীদের সাহায্যে সাড়া দিলে তারা দেশের জন্য বোঝা না হয়ে আশীর্বাদে পরিণত হবে। ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও সৃজনশীল কর্মকান্ডে ইতোমধ্যে প্রতিবন্ধীরা দেশের জন্য গৌরব বয়ে এনেছে। প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে সরকার প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র, অটিজম রিসোর্স সেন্টার, অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল, প্রতিবন্ধী ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণসহ প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। অটিস্টিক, দৃষ্টি ও বাক শ্রবণ প্রতিবন্ধীরা অনেক মেধাবী। তিনি বলেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। ধর্ম যার যার উৎসব সবার। প্রতিমন্ত্রী সরকারের পাশাপাশি দেশি-বিদেশি সংস্থা, স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানসহ সমাজের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক জনগোষ্ঠীর কল্যাণে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
খুলনার জেলা প্রশাসক ও পিএইচটি সেন্টারের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জিয়াউর রহমান এবং জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক খান মোতাহার হোসেন। এসময় খুলনা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের পরিচালক মো. মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত পিএইচটি সেন্টারের তত্ত্বাবধায়ক কাজী মুহাম্মদ ইব্রাহীম। অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী প্রায় একশত দৃষ্টি ও বাক শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের মাঝে ঈদের পোশাক বিতরণ করেন।