আশাশুনির কুল্যায় প্রতিপক্ষের হামলায় সাংবাদিক হাসানসহ আহত ৩


প্রকাশিত : জুন ৩, ২০১৯ ||

আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনির কুল্যায় সাংবাদিকের গাছ কাটায় বাঁধা দেওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় সাংবাদিকসহ একই পরিবারের ৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। এ ব্যাপারে ৭ জনের নাম উল্লেখপূর্বক অজ্ঞাতনামা রেখে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার উপজেলার কুল্যা গ্রামে সকাল ও দুপুরে দু’দফায় প্রতিপক্ষ ওই গ্রামের জামাত-শিবির ও বিএনপি ক্যাডার ইদ্রিস আলির পুত্র রুবেল, সবুর সরদারের পুত্র সুমন, আলী মুনছুর সরদারের পুত্র সেলিম, পুত্র ইদ্রিস, মৃত মোহর আলি সরদারের পুত্র সবুর ও আলী মুনছুরসহ আরও ৯/১০ জন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে শেখ শামসুর রহমানের বাড়ীতে হামলা চালায়। এতে শামসুর রহমানের পুত্র ফেরদৌসকে অস্ত্রশস্ত্র ও আধলা ইটদিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথা ও সর্ব শরীরে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। তার ডাকচিৎকারে তার সহোদর সাংবাদিক এসকে হাসান সহ তার পরিবারের লোকজন ঘটনা স্থলে পৌছে ঠেকাতে গেলে তাদেরকেও মারপিট করে ল্যাপটপ, ক্যামেরা, মোবাইল ফোন সহ নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পার্শ্ববর্তী লোকজন আহতদেরকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এব্যাপারে আশাশুনি থানায় সাংবাদিক এসকে হাসান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলেও আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন আসামী গ্রেপ্তার হয়নি। উল্লেখ্য, জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জেরধরে এসকে হাসানের পরিবারকে জব্দ করতে প্রতিপক্ষরা দীর্ঘদিন নানা ষড়যন্ত্র করে আসছিল। এব্যাপারে আশাশুনি প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক এসকে হাসান সহ তার পরিবারের উপর হামলার নিন্দা, প্রতিবাদ ও হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিবৃতি দিয়েছেন আশাশুনি প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম আহসান হাবিব, সাধারণ সম্পাদক জিএম আল ফারুকসহ প্রেসক্লাবে কর্মকর্তাবৃন্দ।