প্রধানমন্ত্রী ২৫ জুলাই বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন উদ্বোধন করবেন: রেলমন্ত্রী

বেনাপাল (যশোর) প্রতিনিধি: বেনাপোল-ঢাকা রুটে সরাসরি ট্রেন চলাচল আগামী ২৫ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে বলে জানালেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করবেন। বুধবার বিকাল ৫টার সময় বেনাপোল রেল স্টেশন পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
রেল সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা-বেনাপোল ট্রেনে ১০টি বগি থাকবে। তবে রেলের কোনও নাম এখনও নির্ধারণ হয়নি। প্রাথমিকভাবে ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’, ‘বন্দর এক্সপ্রেস’ ও ‘ইছামতি এক্সপ্রেস’ এই তিনটি নাম পছন্দ করা হয়েছে। ১০টি বগির ভেতর দুটি কেবিন, দুটি এসি চেয়ার ও বাকিগুলো চেয়ার থাকবে। কেবিনের ভাড়া প্রাথমিকভাবে এক হাজার ২০০ টাকা, এসি চেয়ারের ভাড়া এক হাজার টাকা ও নন এসি চেয়ারের ভাড়া হবে ৫০০ টাকা। তবে এটি সামান্য কয়েকটি স্টপেজে থামানো হবে। এক কথায় ননস্টপ হিসাবে এ রেলটি চলবে।
সংশ্লিষ্টরা জানান, ঢাকার সঙ্গে বেনাপোলের রেল যোগাযোগ চালু হলে ব্যবসা বাণিজ্যের পাশাপাশি পাসপোর্টযাত্রীদের যাতায়াতে সুবিধা হবে। প্রতিদিন দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে বেনাপোল দিয়ে ছয় থেকে সাত হাজার মানুষ ভারতে যাতায়াত করে থাকেন। এই যাত্রীদের বেশিরভাগ আসেন ঢাকা থেকে। বেনাপোল থেকে পরিবহন সংকট ও দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাটে যানজটের কারণে যাত্রীরা নানামুখী হয়রানির শিকার হন। রেল চালু হওয়ায় সেই হয়রানি লাঘব হবে।
মন্ত্রী বেনাপোলে আসলে তাকে সংবর্ধনা জানান, শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল হক মনজু, সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান, বেনাপোল পৌর সভার মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন, ভারত বাংলাদেশ ল্যান্ডপোর্ট চেম্বার অব কমার্সের বন্দর সাব-কমিটির চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানসহ আরও অনেকে। রেলমন্ত্রী পরে তিনি বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্প, ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস অফিস পরিদর্শন করেন।