ঢাকায় নিহত তাসনীমের মরদেহ গ্রামের বাড়ি কলিমাখালীতে দাফন


প্রকাশিত : জুলাই ৬, ২০১৯ ||

সংবাদদাতা: ঢাকায় সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মম হত্যাকান্ডের শিকার তাসনীমের মরদেহ গ্রামের বাড়ি আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলার কলিমাখালীতে নামাজে জানাযা শেষে দাফন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টায় কলিমাখালী আজিজীয়া সিদ্দিকীয়া সিনিয়র মাদরাসা ময়দানে নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়।
কলিমাখালী গ্রামের মাও. নজরুল ইসলামের ছেলে তাসনিম আলম ঢাকার উত্তরায় একটি দোকানে কাজ করতেন। শনিবার সকাল ৯.১৫ টার পর থেকে তিনি নিখোজ হন এবং তার ব্যবহৃত মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। রবিবার রাত ১১.৫৫ টায় তার অসুস্থ মায়ের সাথে শেষ বারের মত মাত্র ১মিনিট কথা বলার সুযোগ পান তিনি। তারপর থেকে তার মোবাইলটি (০১৯৪৪-৫৬৫৯১২) বন্ধ পাওয়া যায়। অনেক খোজাখুজির পর নিহতের মেজ ভাই তামজিদ আলম বাদী হয়ে ঢাকার দক্ষিনখান থানায় ৩০ জুন জিডি করেন। জিডি নং-১৬০৩। ১ জুলাই রাত ১১.১৫ টার দিকে তাসনিমের ছোট বোন তাজরেমিন তার (নিহতের) মোবাইলে ফোন করলে রিং হতে থাকে। উত্তরার ৮ নম্বর সেক্টরের রেল গেট লাইনের গেটম্যান ফোনটি রিসিভ করে তার অবস্থান নিশ্চিত করলে ঢাকায় থাকা স্বজনেরা দ্রুত সেখানে উপস্থিত হয়ে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। শুক্রবার তার মৃতদেহ শ্রীউলায় আনার পর নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ইউপি চেয়ারম্যন আবু হেনা সাকিল, অধ্যাপক মাও. সোহরাব হোসেন, মরহুমের ছোট ৩ ভাই জসিম উদ্দীন, তামজিদ ও আমানুল্লাহ, চাচা আজিজুল ইসলাম ও পিতা মাও. নজরুল ইসলাম প্রমুখ আলোচনা রাখেন। বক্তাগণ তাসনিমের আত্মর মাগফিরাত কামনার সাথে সাথে হত্যাকারীদের আইনের আওতায় এনে ন্যায় বিচারের দাবি করেন।