কালিগঞ্জে এক সংখ্যালঘু দম্পতিকে মারপিট ও অজ্ঞান করে জমির দলিলসহ সর্বস্ব লুট

বিশেষ প্রতিনিধি: কালিগঞ্জের পল্লীতে এক দম্পতিকে মারপিট ও অজ্ঞান করে জমির দলিলপত্রসহ সর্বস্ব লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের নন্তিবুড়ির বাড়ি নামক স্থানে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন বিষুকা মন্ডল (৪০) জানান, বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ৪/৫ জন মুখোশ পরা ব্যক্তি তাদের বাড়িতে প্রবেশ করে। এসময় তিনি এবং তার স্বামী দিলীপ কুমার মন্ডল (৫০) বসতঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিলেন। দুর্বৃত্তরা বাড়িতে ঢুকেই তাদের উপর হামলা করে। বেধড়ক মারধর করলে এক পর্যায়ে দু’জন অজ্ঞান হয়ে যান। পরে ঘরের মধ্যে থাকা জমির দলিলপত্র ও যাবতীয় জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিবেশিরা রক্তাক্ত জখম অবস্থায় দিলীপ কুমার মন্ডলকে উঠানে এবং বিষুকা মন্ডলকে ঘরের বারান্দায় অচেতন অবস্থায় দেখে থানায় খবর দেয়। সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে উপ-পরিদর্শক মনির তরফদারের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে যেয়ে জনতার সহায়তায় দু’জনকে অচেতন অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা ১১টার দিকে বিষুকা মন্ডলের চেতনা ফিরলেও দুপুর পর্যন্ত অচেতন ছিলেন দিলীপ কুমার মন্ডল। বিষুকা মন্ডল আরও জানান, ওই এলাকার মৃত রহমত গাজীর ছেলে মনিরুজ্জামান মনি (৩২), তার চাচা মুছা গংএর সাথে তাদের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলছে। মনিরুজ্জামান মনি ও তার সহযোগীরা এঘটনা ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছেন তিনি। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।