সুন্দরবনে র‌্যাবের সাথে বনদস্যু বাহিনীর গোলাগুলি, নিহত দুই, অস্ত্র গোলাবারুদ উদ্ধার


প্রকাশিত : জুলাই ২৩, ২০১৯ ||

শ্যামনগর (সদর) প্রতিনিধি: সুন্দরবনে র‌্যাব-৮ এর সাথে বনদস্যু খালেক বাহিনীর গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে সুন্দরবনে চাঁদপাই রেঞ্জের জংলার খাল এলাকায় গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। র‌্যাব-৮ সূত্র মতে, র‌্যাব-৮ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের জংলার খাল এলাকায় নিয়মিত টহল পরিচালনাকালে জংলা খালের পার্শ্বে কিছু সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের আনাগোনা দেখতে পায়। তখন দূর থেকে র‌্যাবের টহল দল কর্তৃক হ্যান্ড মাইকে তাদেরকে র‌্যাবের নিকট আসতে বলা হলে তারা দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। র‌্যাবের টহল দল তাদের পিছু নিলে অতর্কিতভাবে তারা র‌্যাবের টহল দলকে লক্ষ্য করে গুলি বর্ষন শুরু করে। তাৎক্ষনিকভাবে র‌্যাবের টহল দল নিজেদের জীবন ও সরকারী মালামাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলি বর্ষণ শুরু করে। প্রায় ২-৩ ঘন্টা উভয় পক্ষের মধ্যে থেমে থেমে গোলাগুলি চলে। গুলি বর্ষন বন্ধ হলে টহল দল স্থানীয় জেলেদের সহায়তায় বনাঞ্চল তল্লাশী শুরু করে। প্রায় দুই ঘন্টা তল্লাশী করে টহল দল দুই জন আহত ব্যক্তিতে দেখতে পান। টহল দল স্থানীয় জেলেদের সহায়তায় তাদেরকে সনাক্ত করতে সক্ষম হয়। জেলেদের বক্তব্য অনুযায়ী তারা জলদস্যু ‘‘খালেক বাহিনীর’’ সক্রিয় সদস্য। এ সময় জেলেরা তাদের এ সকল নির্মম অত্যাচারের কথা স্বীকার করেছে। পরবর্তীতে তাদেরকে দ্রুত স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয় কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষনা করেন। টহল দল ঘটনাস্থল হতে ৩ টি একনালা বন্দুক, ৩টি ওয়ান শুটার গান, ৪টি পাইপগান ও দেশীয় ধারালো অস্ত্রসহ প্রচুর পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার করে। এছাড়া জলদস্যুদের ব্যবহৃত কাপড় এবং আস্তানায় রক্ষিত বিপুল পরিমান রশদ সামগ্রী ও তৈজষপত্র উদ্ধার করা হয়। অভিযানে ২ জন র‌্যাব সদস্য আহত হয়।