তালায় বদ্ধ ঘরে স্বামীর গয়ে এসিড, স্ত্রী আটক


প্রকাশিত : আগস্ট ১১, ২০১৯ ||

ইলিয়াস হোসেন, তালা: তালায় গভীর রাতে বদ্ধ ঘরে আলামিন নামে এক যুবকের শরীর এসিডে ঝলসে গেছে । তবে কে বা কারা ঘটিয়েছে এমন ঘটনা তা কেউ নিশ্চত করে বলতে পারছে না। ১১ আগস্ট রাত ১ টার দিকে উপজেলার জালালপুরের ইউনিয়নের কানাইদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসময় এক সাথে একই বিছানাই তার স্ত্রী আশা ওরফে হাফসা বেগমে ঘুমিয়ে থাকলেও তিনি অক্ষত রয়েছেন। আহত আলামিন গাজী পেশায় একজন রং মিস্ত্রী সে ঐ গামের সাত্তার গাজীর ছেলে।
স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যান মফিদুল হক লিটু বলেন, একই ঘরে স্বামী এবং স্ত্রী দু জনই ঘুমান্ত। ঘরের দরজা জানালা সবই বন্ধ। তাহলে কিভাবে এসিডে দগ্ধ হলো আলআমীন? আবার তার পুরো শরীর এতটায় ঝলসে গেছে যা অর্বনীয়, তবে স্ত্রী গায়ে কিন্তু এক ফোটা এসিড লাগেনি। এমন চিন্তা চেতনা জায়গা থেকে সন্দেহজনকভাবে পুলিশ তার স্ত্রীকে আটক করেছে।
পারিবারিক সূত্র জানায়, আলআমীন দীর্ঘ দিন যাবৎ ঢাকায় অবস্থান করছিল। অন্যদিকে তার স্ত্রী আশা ওরফে হাফসা বেগম প্রায় ৩ বছর যাবৎ সৌদি আরবে গৃহকর্মী হিসেবে প্রবাসী ছিলেন। গত বছরের ডিসেম্বরের দিকে আয়েশা দেশে ফিরে স্বামীর সাথে একমাত্র ছেলে মুজাহিদ (৮)সহ ঢাকাতেই অবস্থান করছিলেন। গেল বুধবার তারা ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি আসেন।
এব্যাপারে তালা থানার তদন্ত ওসি আবুল কালাম আজদ এ প্রতিবেদক কে বলেন, এসিড দগ্ধ আলামীন এর পিতা মাতা তার স্ত্রী আশা ওরফে হাফসা বেগকে সন্দেহ করছেন। সে কারণে প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদের জন্য আমরা তাকে আটক করেছি। এঘটনায় এখনো তালা থানায় কোন মামলা হয়নি। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে।