ক্রীড়ার প্রতি নতুন প্রজন্মকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে: শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯ ||

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, শরীর সুস্থ রাখার জন্য প্রত্যেককে খেলাধুলা করা প্রয়োজন। নতুন প্রজন্মকে ক্রীড়ার প্রতি বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। খেলাধুলার মাধ্যমে একটি দেশকে বিশ্বের কাছে পরিচিত করে তুলতে পারে। তিনি বলেন, দেশের খেলোয়াড়রা আজ বিদেশেও সুনাম অর্জন করছে।
তিনি শুক্রবার সন্ধ্যায় খুলনার সরকারি দৌলতপুর মুহসিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন খেলোয়াড়দের প্রীতি ফুটবল ম্যাচের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) গোলাম মাঈনউদ্দিন হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ জুট এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শেখ সৈয়দ আলী। স্বাগত জানান সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. শহিদুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার। অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।
শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান পরে দৌলতপুর মতিউর রহমান অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ দৌলতপুর থানার নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে বলেন, ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সকলের। এদেশে ধর্ম, বর্ণ, নির্বিশেষে সবাই যার যার ধর্ম পালন করছে। ধর্মের নামে কোনো বিভেদ সৃষ্টি করতে দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, একাত্তরের পরাজিত সাম্প্রদায়িক অপশক্তি স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশে বিভিন্ন সময়ে এদেশকে সাম্প্রদায়িকতার দিকে ঠেলে দেওয়ার অপকৌশল চালিয়েছিল, কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার লক্ষ্যে শক্ত হাতে কুচক্রীদের সকল ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দিয়েছেন।
বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ দৌলতপুর থানার সভাপতি আশুতোষ চন্দ্র সাধুর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রানা দাস গুপ্ত। স্বাগত জানান হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ দৌলতপুর থানার সাধারণ সম্পাদক বলোরাম দত্ত। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ জুট এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, জেলা, মহানগর ও বিভিন্ন থানা কমিটির সদস্যরা ও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।