জ্বালাও পোড়াও করে যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করা যাবে না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ আ ফ ম রুহুল হক


প্রকাশিত : April 5, 2012 ||

বিশেষ প্রতিনিধি : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করে। আমরা শান্তি ও সম্মৃদ্ধি চাই। একমাত্র সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মাধ্যমে শান্তি ও সম্মৃদ্ধিশালী দেশ গড়তে হবে। একটি চিহিৃত মহল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাঁধাগ্রস্থ করার জন্য মাঠে নেমেছে। তবে জ্বালাও পোড়াও করে তাদের রক্ষা করা যাবে না। এসরকারের আমলেই শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন হবে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় কালিগঞ্জের ফতেপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন, আইনের উর্দ্ধে কেউ নয়।যারা ফতেপুর ও চাকদাহে পরিকল্পিত ভাবে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি শান্তি, শৃঙ্খলা ও সামাজিক সম্প্রীতি রক্ষায় ভূমিকা রাখার জন্য ইমামদের প্রতি আহবান জানান। মন্ত্রী ফতেপুরের ক্ষতিগ্রস্থ বাড়িঘর পরিদর্শন শেষে চাকদাহে যান। এসময় ফতেপুর ও চাকদাহে ক্ষতিগ্রস্থ ১৫ পরিবারের প্রত্যেককে নিজস্ব তহবিল থেকে ৩০ হাজার টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদানের ঘোষনা দেন। এছাড়াও গতকাল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি পরিবারকে নগদ ৮ হাজার টাকা, ২ বান টিন, বেসরকারী সংস্থা উত্তরন’র পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকা গৃহাস্থলীর প্যাকেজ প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কালিগঞ্জ উপজেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক ও তারালী ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হোসেন ছোট’র সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ড. মুহা. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, ডিআইজি মেজবাহ উদ্দীন, সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের প্রশাসক ও সাবেক সাংসদ মুনসুর আহম্মেদ, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্র, জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি মনোরঞ্জন মূখার্জী, কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ ওয়াহেদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব খান আসাদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রিয়াজ উদ্দীন, দেবহাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি প্রমূখ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কালিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহাদাৎ হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তৌফিক-ই-লাহী চৌধুরী, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ও বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি সাইফুল করিম সাবু, জেলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি শেখ হারুন-উর-রশিদ, কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ডিএম সিরাজুল ইসলাম প্রমূখ। জেলা প্রশাসক বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। আমরা মুসলমান হিসেবে মহানবীকে (সাঃ) ভালবাসি। কিন্তু এই ভালবাসার প্রকাশ ঘটাতে যেয়ে ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। একটি বাড়িতে থাকা কোরআন শরীফ পুড়েছে। এতে এতে ইসলাম ধর্ম ও মহানবীর (সাঃ) মানমর্যাদার হানি ঘটেছে। তিনি বলেন, তদন্ত চলছে। দোষীদের শাস্তি হবে। যেসব পত্রিকা দায়িত্বহীণ সংবাদ পরিবেশন করেছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। ডিআইজি মেজবাহ উদ্দীন বলেন, ঘটনাটি প্রকাশ্যে ঘটেছে। আলোচিত নাটকটিও আলোকিত মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসংক্রান্ত ঘটনায় দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধর্মপ্রাণ মানুষকে উসকে দিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা হয়েছে। তিনি শান্তির স্বপক্ষে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আগমনের খবর পেয়ে ফতেপুরসহ পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে বিপুল সংখ্যক মানুষ ফতেপুর মাঠে উপস্থিত হতে থাকে। প্রচুর মহিলাও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্য শোনার জন্য সেখানে উপস্থিত হয়। স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসময় এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্যসহ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় করেন এবং সার্বিক পরিস্থিতির খে^াঁজখবর নেন। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি সর্ম্পূর্ণ স্বাভাবিক হয়ে এসেছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।